আ’লীগের প্রার্থী মোতালেব সাতকানিয়া উপজেলা চেয়ারম্যান

0
35

সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে জয় পেয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এম এ মোতালেব। এ ছাড়াও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে আনজুমান আরা বেগম এবং ভাইস চেয়ারম্যান পদে সালাহ উদ্দিন হাসান চৌধুরী জয় পেয়েছেন।

নৌকা প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করা এম এ মোতালেব পেয়েছেন ৬৩ হাজার ৫৭৩ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করা বিএনপির আবদুল গফফার চৌধুরী পেয়েছেন ৬ হাজার ৯৮৪ ভোট।

সোমবার (১৪ অক্টোবর) রাতে সাতকানিয়া উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা এবং সহকারী রিটার্নিং অফিসার মোহাম্মদ শেখ ফরিদ এসব তথ্য জানান।

নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ৩ জন, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে ২ জন এবং ভাইস চেয়ারম্যান পদে ৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

চেয়ারম্যান পদে জয়ী আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী এম এ মোতালেবের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন বিএনপি মনোনীত প্রার্থী আবদুল গফফার চৌধুরী এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল মোনায়েম মুন্না চৌধুরী।

অন্যদিকে মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে জয়ী কলসি প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করা আনজুমান আরা বেগমের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন প্রজাপতি প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করা তারান্নুম আয়েশা।

এছাড়াও ভাইস চেয়ারম্যান পদে জয়ী বই প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করা সালাহ উদ্দিন হাসান চৌধুরীর সঙ্গে তালা প্রতীক নিয়ে মোহাম্মদ শাহজাহান, চশমা প্রতীক নিয়ে মো. জসীম উদ্দিন, ধানের শীষ নিয়ে বশির উদ্দিন আহমদ, মাইক প্রতীক নিয়ে আছিফুর রহমান সিকদার এবং নলকূপ প্রতীক নিয়ে ওমর ফারুক লিটন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন।

এবারের নির্বাচনে মোট ভোটার ছিলেন ২ লাখ ৮৩ হাজার ৩৮০ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৫০ হাজার ২৮৬ জন এবং মহিলা ভোটার ১ লাখ ৩৩ হাজার ৯৪ জন। ভোট কেন্দ্রে ১২৫ জন প্রিসাইডিং অফিসার, ৭০১ জন সহকারী প্রিসাইডিং অফিসার এবং ১ হাজার ৪০২ জন পোলিং অফিসার দায়িত্ব পালন করেন।

১৭টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভায় মোট ১২৫টি কেন্দ্রে ৭০১টি বুথে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) দ্বারা ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ১২৫টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৯৩টি কেন্দ্রকে গুরুত্বপূর্ণ এবং বাকি কেন্দ্রগুলোকে সাধারণ কেন্দ্র হিসেবে চিহ্নিত করা হয়। নির্বাচনে ১৩ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট, ৫ প্লাটুন বিজিবি এবং র‌্যাবের ৪টি টহল টিম কাজ করে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মো. তৌহিদুল ইসলাম জানান, কয়েকটি বিচ্ছিন্ন ঘটনা ছাড়া শান্তিপূর্ণভাবেই সাতকানিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। আচরণবিধি লঙ্ঘনের দায়ে নাসির উদ্দিন নামের এক ব্যক্তিকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। ভোট কেন্দ্রে মোবাইল ব্যবহারের দায়ে প্রার্থীদের ৩০ জন এজেন্টকে বহিষ্কার করা হয়।

এদিকে বোয়ালখালীর কধুরখীল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শফিউল আজম শেফু ৪ হাজার ৫৮২ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী মোটর সাইকেল প্রতীক নিয়ে নির্বাচন করা আবু জাফর মো. মুছা পেয়েছেন ১ হাজার ৭৫৬ ভোট।

সোমবার (১৪ অক্টোবর) কধুরখীল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ৯টি কেন্দ্রের ভোট গণনা শেষে রিটার্নিং অফিসার এবং উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নুরুল ইসলাম এসব তথ্য জানান।