আশরাফ ও হাবিবের মৃত্যুর ঘটনায় পৃথক মামলা, গ্রেফতার নেই

0
43

চন্দনাইশ পৌরসভা নির্বাচনে দুই কাউন্সিলর প্রার্থীর সমর্থকদের মধ্যে সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয়ে মো. হাবিবের মৃত্যুর ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের করেছে নিহতের পরিবার।

রোববার (২১ ফেব্রুয়ারি) রাতে চন্দনাইশ থানায় নিহত হাবিবের মা ছখিনা খাতুন বাদি হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন চন্দনাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নাসির উদ্দীন সরকার।

তিনি বাংলানিউজকে বলেন, নির্বাচনে সংঘর্ষের ঘটনায় নিহতের মা বাদি হয়ে অজ্ঞাতনামা আসামি করে মামলা দায়ের করেছেন। মামলা তদন্তের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে ওসি (তদন্ত) মো. মজনু মিয়াকে।

এর আগে গত ১৪ ফেব্রুয়ারি চন্দনাইশ পৌরসভা নির্বাচনে ৮ নম্বর ওয়ার্ডের দক্ষিণ গাছবাড়ীয়া প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে কাউন্সিলর পদপ্রার্থী দু’গ্রুপের সংঘর্ষে গুলিবিদ্ধ হয় হাবিব। গুলিবিদ্ধ অবস্থায় প্রথমে চন্দনাইশ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স নিয়ে যাওয়া হলে সেখান থেকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠিয়ে দেওয়া হয়। ৮ দিন চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকার পর রোববার তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা চন্দনাইশ থানার ওসি (তদন্ত) মজনু মিয়া বলেন, রাতে থানায় মামলা হয়েছে। তদন্ত কাজ প্রাথমিকভাবে শুরু করেছি। এই ঘটনার সঙ্গে যারাই জড়িত থাকুক তাদেরকে আইনের আওতায় আনা হবে।

এদিকে আনোয়ারায় ছাত্রলীগ কর্মী আশরাফ উদ্দীন চৌধুরী ছুরিকাঘাতে নিহত হওয়ায় ঘটনায় ২০ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ জেলা ছাত্রলীগের ছাত্রবিষয়ক উপসম্পাদক নয়ন সরকারকে প্রধান আসামি করে ৫ জনের বিরুদ্ধে মামলা করেন নিহত আশরাফের বাবা মো. আবদুল। তবে এখনও কোনো আসামিকে গ্রেফতার করা যায়নি।

শুক্রবার ( ১৯ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যা সাতটার দিকে উপজেলা সদরের জয়কালী হাট এলাকার মা কমিউনিটি সেন্টারের সামনে আশরাফ উদ্দীন (১৭) ছুরিকাঘাতে আহত হন। তাকে উদ্ধার করে প্রথমে আনোয়ারা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়ার পথে রাত ১০টার দিকে তিনি মৃত্যুবরণ করেন।

আনোয়ারা থানার ওসি এস এম দিদারুল ইসলাম সিকদার বলেন, আসামিদের গ্রেফতারে অভিযান চলছে।