ইমাম ও মোয়াজ্জিনদের টাকা তুলে দিলেন মেয়র

0
9

চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের সড়ক বাতির সুইচ অন-অফ কাজে নিয়োজিত ১৫৫৬ জন ইমাম, মোয়াজ্জিন ও পুরোহিতদের মাঝে ৩১ লক্ষ ১২ হাজার টাকা সম্মানিভাতা বিতরণ করা হয়। এ ভাতার অর্থ প্রত্যেকের হাতে তুলে দেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন। এ উপলক্ষে ৫ জুন ২০১৮ খ্রি. সকালে নগরীর মুসলিম ইনস্টিটিউট হলে ইমাম, মোয়াজ্জিন ও পুরোহিত সমাবেশে প্রধান অতিথির ভাষনে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র আলহাজ্ব আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেছেন, মাদক,সন্ত্রাস ও জঙ্গীবাদ বিষয়ে সচেতনতা সৃষ্টির জন্য ঈমাম,মোয়াজ্জিন ও পুরোহিতদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। মেয়র ইসলাম বিরোধী এসকল অপকর্ম সহ সকল অপকর্ম ও নাগরিক সেবার দিকগুলো তুলে ধরার জন্য ঈমাম, মোয়াজ্জিন ও পুরোহিতদের আহবান জনান। তিনি বলেন, চট্টগ্রাম শহর আলোকিত থাকলে অপরাধ প্রবণতা অনেকাংশে কমে যাবে। সড়ক বাতির সুইচ অন-অফ নিয়মিত হলে অনেকাংশে বিদ্যুৎ খরচ সাশ্রয় হবে। এর ফলে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন, দেশ ও জাতি উপকৃত হবে। এ প্রসঙ্গে মেয়র বলেন, চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন সড়ক বাতির জন্য মাসে প্রায় ১ কোটি টাকা বিদ্যুৎ বিল পরিশোধ করে থাকে। নগরীর সড়ক বাতির সুইচ অন-অফও সেবার একটি অংশ। বিদ্যুৎ অপচয় রোধ করার লক্ষে এ সেবায় নিয়োজিত ইমাম ও মোয়াজ্জিনদের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। মেয়র ময়লা আবর্জনা নির্দিষ্ট সময়ে এবং নির্ধারিত স্থানে ফেলার বিষয়ে মুসল্লীদের অনুপ্রানিত করতে ইমামদের আহবান জানান। সুইচ অন-অফ এর দায়িত্বে নিয়োজিতদের মাঝে সম্মানি ভাতা প্রদান উপলক্ষে অনুষ্ঠিত অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ২৩নং উত্তর পাঠানটুলী ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও বিদ্যুৎ বিষয়ক স্থায়ী কমিটির সভাপতি মোহাম্মদ জাবেদ। অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে ২৪নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর নাজমুল হক ডিউক, ৪১ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর সালেহ আহমদ চৌধুরী, সংরক্ষিত ওয়ার্ড কাউন্সিলর মিসেস আবিদা আজাদ, চসিক সচিব মোহাম্মদ আবুল হোসেন, প্রধান প্রকৌশলী লে. কর্ণেল মহিউদ্দিন আহমদ, তত্ত্বাবধায়ক প্রকৌশলী মো. মাহফুজুল হক, জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. আবদুর রহিম, নির্বাহী প্রকৌশলী ঝুলন কুমার দাশ, সহকারী প্রকৌশলী রেজাউল বারী ভুঁইয়া, আবুল হাসেম, আনোয়ারুল হক চৌধুরী সহ বিদ্যুৎ বিভাগের দায়িত্বশীল কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন। প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিটি মেয়র আ জ ম নাছির উদ্দীন বলেন, শান্তি ও মানবতার ধর্ম পবিত্র ইসলাম। পবিত্র ইসলাম এর নামের উপর কলংক লেপনের লক্ষে ইসলাম বিদ্বেষীরা জঙ্গী ও সন্ত্রাসী কার্যক্রম পরিচালনা করছে। প্রিয় নবীজীর সময়েও ইসলাম বিদ্বেষীরা পবিত্র ইসলামের নামে অপপ্রচারে লিপ্ত ছিলেন। মেয়র পবিত্র ইসলামের নামে যারা অনৈসলামিক কার্যক্রম পরিচালনায় লিপ্ত তাদের সম্পর্কে ধর্মপ্রাণ নাগরিকদের অবহিত করতে ইমামদের প্রতি আহবান জানান।