ঈদগাঁও বাজারের সুপারি গলি ময়লা আবর্জনার ভাগাড়

0
11

সেলিম উদ্দীন, ঈদগাঁও, কক্সবাজার প্রতিনিধি, কক্সবাজার সদরের ঈদগাঁও বাজারে পর্যাপ্ত ডাস্টবিন না থাকায় বাজারের সুপারি গলিতে যত্রতত্র ময়লা আবর্জনা ফেলা হচ্ছে । এ ময়লা পুরো ঈদগাঁও বাজারে ছড়িয়ে পড়ে বাজার দুর্গন্ধে পরিণত হচ্ছে। এছাড়া নিয়মিত বর্জ্য অপসারণ না করায় দুর্গন্ধ দিন দিন বৃদ্ধি পাচ্ছে। ডাস্টবিনের অভাবে বাজারের চতুর্দিকে বসত বাড়ির আশপাশের ড্রেনেও যাবতীয় ময়লা ঢালছে অনেকে। ফলে বাজারের অধিকাংশ ড্রেন ভরে গেছে ময়লা-আবর্জনায়। বৃষ্টি হলে পানি নিষ্কাশন না হওয়ায় জলাবদ্ধতায় রূপ নিয়েছে।
প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, ঈদগাঁও বাজার পরিচালনা কমিটি কর্তৃক বিভিন্ন পয়েন্টে পর্যাপ্ত পরিমাণ ডাস্টবিন স্থাপন করা হলেও রাতের অন্ধকারে কিছু কিছু ডাস্টবিন চুরি হয়ে যায়। বাজারের সুপারি গলি থেকে শুরু করে আশপাশে জমে রয়েছে ময়লার স্তুপ। যে কয়েকটি ডাস্টবিন রয়েছে সেগুলোও ব্যবহার না করে যত্রতত্র ময়লা ফেলা হচ্ছে। বাজারের বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে জমে থাকা আবর্জনা কুকুর, কাক বিচরণ করে ময়লার স্তুপ ছড়িয়ে ছিটিয়ে দিচ্ছে। ফলে একটু বাতাস হলেই চারিদিকে দুর্গন্ধ ছড়াচ্ছে। নাক চেপে চলাফেরা করছেন পথচারীরা। কয়েকদিনের বৃষ্টিপাতে খানা-খন্দে ভরা বাজারের কিছু এলাকার ময়লা-আবর্জনায় রাস্তায় চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়ে। একদিকে রাস্তায় পানি, আরেক দিকে ডাস্টবিনের ময়লা-আবর্জনা মিশ্রিত কাদা-পানির মধ্যে চলছে বাজারের মানুষ।
বাজারের বাশঁঘাটা সড়ক, কাঁচা বাজার সড়ক, বিশেষ করে ঈদগাঁও বাজারের দক্ষিণ পার্শে বঙ্কিং বাজার থেকে শুরু করে আলমাছিয়া গেইট পর্যন্ত খানা-খন্দকে ভরা। যে কোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা হওয়ার সম্ভবনা রয়েছে এবং বাজারের এসব জায়গায় এমন দৃশ্য চোখে পড়ার মতো। সুপারি গলি ডাস্টবিন সংস্কারসহ বাজারের সমস্থ সড়ক আবর্জনামুক্ত করার দাবী জানিয়েছেন সচেতন মহল।