‘ওষুধ শিল্পের মানোন্নয়নে গবেষণার প্রয়োজন’

0
28

বিজিসি ট্রাস্ট ইউনিভার্সিটির উপাচার্য প্রফেসর ড. সরোজ কান্তি সিংহ হাজারী বলেছেন, ওষুধ শিল্পের মানোন্নয়নে গবেষণার কোন বিকল্প নেই। বর্তমানে বাংলাদেশের ওষুধ শিল্প পৃথিবীব্যাপী সুনাম অর্জন করেছে।

বুধবার (২৯ জানুয়ারি) চন্দনাইশ বিজিসি বিদ্যানগরে বিজিসি ট্রাস্ট ইউনিভার্সিটিতে অনুষ্ঠিত ‘ন্যাশনাল কনফারেন্স অন ফার্মাসিউটিক্যাল সায়েন্স’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রফেসর ড. সরোজ কান্তি সিংহ হাজারী বলেন, বাংলাদেশের উৎপাদিত ওষুধ রফতানি হয়ে দেশে আসছে বৈদেশিক মুদ্রা। তাই এই শিল্পের বিকাশে আরো গবেষণা করতে হবে। মৌলিক গবেষণা, মডেল ফার্মেসী এবং প্রাকৃতিক উৎস হতে আধুনিক ঔষধের উৎপাদন এবং ব্যবহার বিষয়ে জনগনকে আরো সচেতন করতে হবে।

বিজিসি ট্রাস্ট ইউনিভার্সিটির ফার্মেসী বিভাগের উদ্যোগে আয়োজিত এ কনফারেন্সে দেশের ২২টি সরকারী- বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয় ও বিজ্ঞান গবেষণা প্রতিষ্ঠানের গবেষক এবং ফার্মাসিকউটিক্যাল সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বর্তমান সময়ের ফার্মাসিউটিক্যাল সায়েন্সের বিভিন্ন মৌলিক গবেষণার উপর ২৩টি মৌলিক গবেষণাপত্র, ২৩টি ওরাল ও ৫৬টি পোস্টার উপস্থাপন করেন।

ফার্মেসী বিভাগের চেয়ারম্যান অনিন্দ্য কুমার নাথের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত কনফারেন্সে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. সিতেশ চন্দ্র বাছার, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগের প্রফেসর ড. তাপসী ঘোষ রায়, স্টেট ইউনিভার্সিটির ফার্মেসী বিভাগের প্রফেসর ড. হাসান কাওসার, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বায়োকেমিস্ট্রি অ্যান্ড মলিকুলার বায়োলজি বিভাগের চেয়ারম্যান প্রফেসর ড. আতিয়ার রহমান, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ফার্মেসী বিভাগের চেয়ারম্যান ড. শফিকুল ইসলাম।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার এ এফ এম আখতারুজ্জামান কায়সার, সহকারী অধ্যাপক মোহাম্মদ জিয়া উদ্দীন ও ড. তালহা বিন ইমরান।