ওয়েন রুনির ইনজুরিটি খুবই ভয়ঙ্কর

0
7

ওয়েন রুনথিয়ো ওয়ালকট বলেছেন, তার সতীর্থ ওয়েন রুনির ইনজুরিটি খুবই ভয়ঙ্কর। একে তিনি, ‘জলজ্যান্ত হরর ছবির দৃশ্য’ বলে উল্লেখ করেছেন।

চলতি সপ্তার শুরু দিকে অনুশীলনের সময় দলীয় খেলোয়াড় ফিল জোন্সের সঙ্গে বল দখলের লড়াইয়ে কপালে আঘাত পান রুনি। তার কপালে বড় ক্ষতের সৃষ্টি হয়েছে। যাকে ‘বিভৎস’ উল্লেখ করেছেন ওয়ালকট।

সেখানে সেলাই করতে হয়েছে। ওই ইনজুরির কারণে ২৭ বছর বয়সী ইংলিশ স্ট্রাইকারকে বাইরে রেখে মলদোভা ও ইউক্রেনের সঙ্গে বিশ্বকাপের বাছাইপর্বের ম্যাচের জন্য জাতীয় দল গঠন করতে হয়েছে।

সেন্ট জর্জস পার্কে জাতীয় দলের ক্যাম্পস্থলে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে ইনজুরির বর্ণনা দেয়ার আগে ওয়ালকট এক বোতল পানি খেয়ে নেন। এরপর বলেন, ‘আমি তার ইনজুরির যে দৃশ্যটি দেখেছি সেটি হচ্ছে বিভৎস একটি ক্ষত। সেখানে বড় ধরনের ক্ষত সৃষ্টি হয়েছে। সত্যি কথা বলতে এটি দেখার মত নয়। এটি দেখতে অনেকটাই হরর ছবির দৃশ্যের মত মনে হয়েছে।’

আগামী শুক্রবার মলদোভার বিপক্ষে নিজেদের মাঠে অনুষ্ঠিতব্য বাছাইপর্বের ম্যাচের জন্য রুনির পরিবর্তিত হিসেবে জাতীয় দলের পাইপ লাইনে রাখা হয়েছিল লিভারপুল স্ট্রাইকার ডেনিয়েল স্টুরিজকে। কিন্তু এখন তিনিও অনিশ্চয়তায় পড়ে গেছেন, কারণ উরুর ইনজুরির কারণে বুধবারের অনুশীলন থেকে বিরত থাকতে হয়েছে তাকেও।

এখন হয় রুনির ইউনাইটেড সতীর্থ ডেনি ওয়েলবেক, নতুবা সাউদাম্পটনের রিকি ল্যামবার্টকেই নিতে হবে মলদোভার বিপক্ষে ম্যাচের দায়িত্ব।

ওয়ালকট বলেন, ওয়েন রুনিকে দলের বাইরে দেখে কষ্ট হচ্ছে। তবে অন্যজনের জন্য এটি একটি সুযোগ হিসেবে এসেছে।

তিনি বলেন, নিজের ক্লাবের হয়ে দারুণভাবে মৌসুম শুরু করেছে ডেনি ওয়েলবেক। আর জাতীয় দলে ক্যারিয়ার শুরু করার বিশাল সুযোগ অপেক্ষা করছে ল্যামবার্টের। সুতরাং কোচের হাতে ভাল দু’টি বিকল্প রয়েছে। আমি নিশ্চিত কোচ ভালভাবেই জানেন তাকে কি করতে হবে।