কক্সবাজারের ইসলামপুর রিফাত সড়কের বেহাল দশা!

0
27

সেলিম উদ্দীন,কক্সবাজার।

কক্সবাজার সদরের ইসলামপুরের নতুন অফিস বাজারের দক্ষিণে অবস্থিত রিফাত সড়ক। খানা-খন্দে ভরে আছে এ সড়কটি।
তাছাড়া ড্রেনেজ ব্যবস্থা অকেজো হওয়ার কারণে সামান্য বৃষ্টিতে রাস্তার ওপর জমে থাকে হাঁটু পানি। শুধু তাই নয় বৃষ্টির পানিতে রাস্তার মাঝ পথ ভেঙ্গে যোগাযোগ বিচ্ছিন্নসহ সৃষ্টি হয় চরম দুর্ভোগ।
এমন অভিযোগ স্থানীয়দের। এলাকাবাসি জানায়, বেহাল দশায় বিপন্ন জনজীবন। তাই সড়কটি দ্রুত নতুন করে সংস্কারের দাবি জানিয়েছেন।
স্থানীয়রা আরো বলছেন, নির্বাচনের আগে জনপ্রতিনিধিরা নানা প্রতিশ্রুতি দিয়ে ক্ষমতায় আসে। আবার ক্ষমতার পালা বদলও হয়। কিন্তু এলাকাবাসির চলাচলের একমাত্র মাধ্যম রিফাত সড়কটি সংস্কার হয়না। প্রায় ৫ বছরের অধিক সময় ধরে সংস্কার না হওয়ায় রিফাত সড়ক হতে মধ্যম নাপিতখালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পর্যন্ত এ সড়কটির বেহাল দশা।
এ সড়ক দিয়ে জীবন ঝুঁকি নিয়ে প্রতিনিয়ত যাতায়ত করে বিভিন্ন যানবাহনসহ কিন্ডার গার্ডেন, স্কুল-কলেজগামী শিক্ষার্থী ও হাজার হাজার পথচারী।
অনেক সময় যানবাহন চলাচলে ঘটছে ছোট খটো দুর্ঘটনাও।
সড়ক দিয়ে যাতায়াতকারী ইজি বাইক চালকরা জানান, প্রতিদিন তাদের ওই সড়ক দিয়ে যাতায়াত করতে হয়। সড়কের মাঝ পথে ভাঙ্গন ও খানাখন্দ থাকার কারণে অত্যন্ত ঝুঁকি নিয়ে গাড়ি চালাতে হয়।
তারা বলেন, ‘অনেক সময় গর্তের মধ্যে তাদের গাড়ি উল্টে দুর্ঘটনা ঘটে।
এ সড়ক দিয়ে অসুস্থ্য রোগী, স্কুল পড়ুয়া কোমলমতি শিশু ও গর্ভবতী নারীরা দুর্ঘটনায় আহতও হয়েছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক জনৈক ট্রাক ড্রাইভার জানান, প্রায় পাঁচ বছর যাবত এ সড়কে বড় বড় গর্তের সৃষ্টি হলেও সংষ্কারের কোনও ধরনের উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।
ফলে সবসময় জীবন ঝুঁকির মধ্যে গাড়ি চালিয়ে বাড়ীতে আসা যাওয়‍া করতে হয়।
তিনি বলেন, ‘বৃষ্টির সময় গর্তগুলো বৃষ্টির পানিতে তলিয়ে থাকে। এতে করে গাড়ি উল্টে অনেক দুর্ঘটনা ঘটলেও রাস্তা সংস্কারের কোনও উদ্যোগ নেওয়া হয়নি।
দ্রুত সময়ের মধ্যে এই রাস্তা সংস্কারের দাবি জানান তিনি।
স্থানীয় বাসিন্দারা জানান, দীর্ঘদিন থেকে সংস্কার বিহীন হয়ে পড়ে আছে রিফাত সড়ক থেকে মধ্যম নাপিতখালী পর্যন্ত প্রায় এক কিলোমিটার রাস্তাটি। মাঝে মধ্যে এ সড়ক দিয়ে যাতায়তের সময় সাধারণ মানুষের দুর্ভোগ দেখে নিজেদের উদ্যোগে বুড়ির দোকান এলাকার রাস্তার ভাঙ্গন সংস্কার করা হয়েছে।
বর্ষা মৌওসুমে এ রাস্তার বেহাল দশা সৃষ্টি হয়েছে। যার ফলে দ্রুত এ সড়ক সংস্কারে এলাকাবাসি ইউপি চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন।