কমান্ডো অভিযানে বিমান ছিনতাইয়ের চেষ্টাকারী নিহত

0
90

কমান্ডো অভিযানে অস্ত্রধারী নিহত হয়েছে বলে নিশ্চিত হওয়া গেছে। চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দরে বিমান ছিনতাই নাটকের অবসান হয়েছে। ঘটনার সঙ্গে জড়িত অস্ত্রধারী যুবক মাহাদী নিহত হয়েছেন। রোববার (২৪ ফেব্রুয়ারি) রাত পৌনে নয়টায় সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে ব্রিফিংয়ে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সেনা বাহিনীর চট্টগ্রাম জোনের জিওসি মেজর জেনারেল মতিউর রহমান ।

বিমানের বিজি-১৪৭ নম্বর ফ্লাইটটি চট্টগ্রাম থেকে দুবাই যাওয়ার কথা। কিন্তু উড্ডয়নের পরপরই এ ঘটনা ঘটে। পরে দ্রুত ফ্লাইটের সব যাত্রীকে নামিয়ে দেয়া হয়।

বিমানবন্দর সূত্রের বরাত দিয়ে একাধিক সংবাদমাধ্যমের খবরে বলা হয়েছে, যাত্রীদের নামিয়ে আনলেও দুইজন ক্রু প্লেনের ভেতরে রয়েছেন। ভেতরে গুলির শব্দ শোনা গেছে। কেউ একজন তাতে আহত হতে পারেন বলেও ধারণা করা হচ্ছে।

ঢাকার শাহজালাল বিমানবন্দরের নিরাপত্তার বেড়াজাল ডিঙিয়ে অস্ত্র নিয়ে রোববার বিমানের দুবাইগামী ফ্লাইটে উঠে পড়েছিলেন ওই ব্যক্তি।

তিনি পাইলটের মাথায় অস্ত্র ঠেকিয়ে তার ‘পারিবারিক সমস্যা’ নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে চাইছিলেন বলে বিমানযাত্রী ও সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা জানিয়েছেন।

সন্ধ্যা পৌনে ৬টার দিকে উড়োজাহাজটি শাহ আমানতে অবতরণের পর আইনশঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তা ঘিরে ফেলে। এর কিছুক্ষণ পর অভিযানে নামে নিরাপত্তা বাহিনীর কমান্ডোরা।

কমান্ডো অভিযান শুরুর ৮ মিনিটের মধ্যে সন্ধ্যা ৭টা ২৪ মিনিটে রাষ্ট্রায়ত্ত বিমান সংস্থার বোয়িং-৭৩৭ উড়োজাহাজটি মুক্ত করা হয় বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের (বেবিচক) চেয়ারম্যান এম নাঈম হাসান।

রাত ৮টার দিকে সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেছিলেন ছিনতাইয়ের চেষ্টাকারীকে জখম অবস্থায় আটক করা হয়েছে।

বিমান বাহিনী জানিয়েছে, সমঝোতার মাধ্যমেই সে বিমানবাহিনীর কাছে আত্মসমর্পণ করেছে।

এরআগে রোববার (২৪ ফেব্রুয়ারি) সন্ধ্যায় বিজি-১৪৭ নং ফ্লাইটটি ঢাকা থেকে চট্টগ্রাম হয়ে দুবাই যাওয়ার জন্য উড্ডয়ানের পরপরই সেটি জরুরি অবতরণ করা হয়।

ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে সিভিল এভিয়েশন সচিব মহিবুল হক জানান, বিমানটির মধ্যে সন্দেহভাজন একজন অস্ত্রধারী পাইলটসহ দুইজন ক্রুকে জিম্মি করে। ঘটনার পরপরেই বিমানবন্দর বন্ধ করে দেয়া হয়। র‍্যাবের একাধিক গাড়ি বিমানবন্দরে প্রবেশ করে।

জানা যায়, বিমান ছিনতাই চেষ্টাকারী চিত্রনায়িকা শিমলার ব্যর্থ প্রেমিক। তার নাম সাগর। প্রেমে ব্যর্থ হয়েই সে এই ঘটনা ঘটিয়েছে।

চট্টগ্রামের সংসদ সদস্য (এমপি) ও জাসদনেতা মাঈন উদ্দিন বাদলও ওই প্লেনের যাত্রী ছিলেন। তিনি প্লেন থেকে বেরিয়ে সাংবাদিকদের বলেন, প্লেনে সন্দেহভাজন একজনকে আটক করা হয়েছে। তার হাতে পিস্তল দিয়ে গুলি করে। তবে পাইলট ও যাত্রীরা নিরাপদে রয়েছেন।

সন্দেহভাজন ব্যক্তি অস্ত্রধারী কি-না বিষয়টি তিনি নিশ্চিত করতে পারেননি। পরিস্থিতি স্বাভাবিক বলেও জানান আরেফিন জুয়েল।

এর আগে চট্টগ্রামের শাহ আমানত বিমানবন্দরে বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্সের একটি উড়োজাহাজ ছিনতাইয়ের চেষ্টা করা হলে, জরুরি অবতরণ করে ফ্লাইটটি। আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর সাহায্যে উড়োজাহাজটি থেকে সব যাত্রীকে নিরাপদে নামিয়ে আনা হয়। বিজি-১৪৭ নং ফ্লাইটটি চট্টগ্রাম থেকে ঢাকা হয়ে দুবাই যাওয়ার কথা ছিলো।