কোরবানী ঈদকে পুজি করে গরু চুরির হিড়িক

0
53

মোঃ মহিন উদ্দীন:
হাটহাজারীতে কৃষকের পালিত গরু চুরির হিড়িক পড়েছে। ঈদকে সামনে রেখে কৃষকের গোয়াল ঘর থেকে চোরেরা গরু চুরি করে নিচ্ছে প্রতি রাতে। কৃষকরা তাদের গরু গোয়াল ঘরে রেখে তন্দ্রায় গেলে বা কোথাও দৃষ্টি এড়ালেই গভীর রাতে চুরি হয়ে যাচ্ছে গরু। এলাকাবাসী বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করেও ধরতে পারছে না চোরদের।
টহল পুলিশের জোরদার না থাকায় এমন চুরির ঘটনা ঘটছে বলে অভিযোগ করছেন এলাকাবাসীরা।

জানা যায়,গত কয়েক মাস ধরে উপজেলার ফরহাদাবাদ,ধলই,মির্জাপুর,গুমানমর্দ্দন, নাঙ্গলমোরা,ছিপাতলী,মেখল,ফতেহপুর,দক্ষিণ মাদার্শার,গড়দুয়ারা,চিকনদণ্ডী,শিকারপুর, বুড়িশ্চর, মাদার্শা ইউনিয়নে গরু চুরির ঘটনা ঘটছে। এ সব ইউনিয়নের থেকে ২০/৩০ টি গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে। ফলে গরু
চুরি হয়ে যাওয়ায় কৃষকরা দিশেহারা হয়ে পড়েছেন। এ কোরবানী ঈদ অনেক কৃষক গরু মোটা তাজাকরন করেছেন। কৃষকগন জীবন বাজী রেখে এবং খেয়ে না খেয়ে গরু পিছনে শ্রম দিচ্ছেন। তবে প্রতিরাতে গরু চুরি হলেও মাথা ব্যাথা নেই পুলিশের এমন দাবী কৃষকদের।

গত ৩/৪ দিন আগে ফরহাদাবাদ ইউনিয়নের মোহচেনা পাড়ার আরাফাত নামের এক ব্যক্তির ৪টি গরু চরি করে নিয়ে যায়।যার আনুমানিক মুল্য প্রায় আড়াই লাখ টাকা। একই দিন পশ্চিম ধলই সরওয়ার নামের একব্যক্তির বাড়ি থেকে বিদেশি জাতের গাভী চুরি করে নিয়ে যায়।যার আনুমানিক মুল্য প্রায় ৭০ হাজার টাকা।

একাধিক এলাকাবাসী অভিযোগ করে বলেন, চোরেরা পিকআপ ভ্যান নিয়ে আসে। ভ্যানটি সড়কের পাশে রেখে ক্রুটি মেরামতের নাটক করে। পরে সুযোগ বুঝে গরু ভ্যানে তুলে নিয়ে যায়। একাধিক ব্যক্তি এঘটনা দেখেছে। তবে তাদের সন্দেহ হয়নি যে ওই ভ্যানে চোরেরা এসেছে।
গরু চুরি ঠেকাতে পুলিশের টহল ব্যবস্থা জোরদার করার জন্য ওসি এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন স্থানীয় কৃষকরা