খালেদা গৃহবন্দী নন – তোফায়েল আহমেদ

0
3

তোফায়েলআওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য ও শিল্পমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ বলেছেন, তারেক রহমান বিদেশে বসে দেশের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র করছেন। গণতন্ত্রকে হত্যার অপতত্পরতা চালাচ্ছেন।

আজ শনিবার সন্ধ্যায় ধানমন্ডিতে আওয়ামী লীগ সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে তোফায়েল আহমেদ এই মন্তব্য করেন।

লিখিত বক্তব্যে তোফায়েল বলেন, ‘দুর্নীতি, সন্ত্রাস, অর্থ পাচারসহ অসংখ্য মামলার আসামি হয়ে যে ব্যক্তির আইনের মুখোমুখি দাঁড়ানোর সত্ সাহস নেই, সেই ভীরু, পলাতক, নৈতিক স্খলিত ব্যক্তির এই অপতত্পরতায় দেশবাসী হতবাক, বিস্মিত ও ক্ষুব্ধ হয়েছে। গণতন্ত্র, উন্নয়ন ও অগ্রগতির স্বার্থে বিভিন্ন অপরাধে অভিযুক্ত ও আইনের দৃষ্টিতে পলাতক তারেক রহমানের বিরুদ্ধে অবিলম্বে যথোচিত আইনগত পদক্ষেপ গ্রহণের প্রত্যাশা করছে।’

আজ যুক্তরাজ্যের রাজধানী লন্ডন থেকে এক ভিডিও বার্তায় তারেক রহমান আগামীকালের নির্বাচন বর্জনের আহ্বান জানানোর পর তাঁর সম্পর্কে এসব কথা বলেন তোফায়েল।

খালেদা গৃহবন্দী নন

তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘আমি পরিষ্কার করে দিচ্ছি, বিরোধী দলের নেতা খালেদা জিয়া গৃহবন্দী নন। এ কারণে তিনি বিবৃতি দেওয়া, বিদেশি কূটনীতিকদের সঙ্গে সাক্ষাত্সহ স্বাভাবিক কাজকর্ম করতে পারছেন।’

তোফায়েল বলেন, বিএনপির সাংসদেরা রাষ্ট্রপতির কাছে জানতে চেয়েছেন খালেদা জিয়া গৃহবন্দী না গ্রেপ্তার। তিনি পাল্টা প্রশ্ন তুলে বলেন, ‘গৃহবন্দী থাকলে মার্কিন রাষ্ট্রদূত ড্যান ডব্লিউ মজীনা ও ব্রিটিশ হাইকমিশনার রবার্ট গিবসন কীভাবে তাঁর সঙ্গে দেখা করলেন?’

বিএনপিকে নির্বাচনে আনতে আওয়ামী লীগের চেষ্টার কোনো ত্রুটি ছিল না দাবি করে তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী অনেকবার বিএনপিকে নির্বাচনে আনতে সংলাপের উদ্যোগ নিয়েছিলেন। কিন্তু তারা আসেনি। জাতিসংঘের সহকারী মহাসচিব অস্কার ফার্নান্দেজ তারানকোর উপস্থিতিতে তাঁদের সঙ্গে আমাদের সংলাপ হয়েছিল। সেখানে আমাদের পক্ষ থেকে নির্বাচন ১০ দিন পেছানোর প্রস্তাব দিয়েছিলাম। কিন্তু বিরোধী দলের ছিল এককথা। শেখ হাসিনা প্রধানমন্ত্রী থাকলে ও তফসিল স্থগিত করা না হলে তাঁরা নির্বাচনে অংশ নেবেন না। ফলে এখন সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা রাখতে আমাদের নির্বাচন করতে হচ্ছে।’

ভোট দিতে যাওয়ার আহ্বান

তোফায়েল আহমেদ বলেন, ‘নির্বাচনকে সর্বাত্মক অবাধ, নিরপেক্ষ, সুষ্ঠুভাবে সম্পন্ন করার লক্ষ্যে স্বাধীন নির্বাচন কমিশন ইতিমধ্যে যথোচিত পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে। দেশবাসীকে ভোটকেন্দ্রে উপস্থিত হয়ে তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগের জন্য আহ্বান জানাচ্ছি।’

তোফায়েল আহমেদ বলেন, গণতন্ত্রবিরোধী এই অপশক্তি দুর্ভাগ্যজনকভাবে নির্বাচন বর্জনের অজুহাতে গতকাল দেশের কোনো কোনো স্থানে বোমা, পেট্রলবোমা নিক্ষেপ ও অগ্নিসংযোগ করে কিছু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ধ্বংস এবং শিক্ষার্থীদের বই-পুস্তকসহ শিক্ষা উপকরণও ভস্মীভূত করেছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মহীউদ্দীন খান আলমগীর, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ও যোগাযোগমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক দীপু মনি, জাহাঙ্গীর কবির নানক প্রমুখ।