ঘরে বানানো চটপটি

0
50

চটপটি খেতে কার না ভালো লাগে। কিন্তু ইয়াম্মি চটপটি খেতে সবসময়ই কি বাইরে যাওয়া যায়? রাস্তার পাশের চটপটির ভ্যান থেকে খাওয়ার মজা অন্যরকম হলেও স্বাস্থ্যের জন্য যে তা ভালো না জানি সবাই। কিন্তু জিভকে সামাল দেয়া যে দুষ্কর! তবে এই মজার খাবারটির রেসিপি জানা থাকলে কিন্তু মন্দ হয় না! চটপটি খাওয়ার ক্রেভিং হলে চট করে যেন নিজেই বানিয়ে খেতে পারেন তার জন্যই আজকে সবচেয়ে সহজ করে ঘরে বানানো চটপটি রেসিপি দেয়া হলো। তাহলে বানিয়ে ফেলুন দারুণ ইয়াম্মি চটপটি!
ঘরে বানানো চটপটি যেভাবে করতে হয়
উপকরণ

ডাবলি বুট- ২ কাপ
আলু মাঝারি সাইজের- ২-৩ টা
পেঁয়াজ কুঁচি- ১/২ কাপ
মরিচ গুঁড়া- ১/২ চা চামচ
জিরা গুঁড়া- ২ চা চামচ
ধনিয়া গুঁড়া- ১.৫ চা চামচ
বেকিং সোডা- ১ চা চামচ
লবণ- স্বাদমতো
সয়াবিন তেল- ২ টেবিল চামচ
পাকা তেঁতুল- ১/২ কাপ
শুকনামরিচ- ২ টা
ভাজা জিরা গুঁড়া- ১/২ চা চামচ
বিট লবণ- ১ চা চামচ
লবণ- স্বাদমতো
চিনি- স্বাদমতো
সরিষার তেল- ২ চা চামচ
পানি- প্রয়োজন মত
সিদ্ধ ডিমের ঝুরি- ১ কাপ
শসা কুঁচি- ১ কাপ
ধনিয়া পাতা কুঁচি- ১ কাপ
কাঁচা মরিচ কুঁচি- ১/২ কাপ
পেঁয়াজ কুঁচি- ১/২ কাপ
নিমকি- পছন্দমতো

প্রণালী

(১) প্রথমে ডাবলি বুট একটি বড় বাটিতে নিয়ে বেশি করে পানি দিয়ে ৫-৬ ঘন্টা ভিজিয়ে রাখতে হবে। ডিম ও আলু ভালোভাবে সিদ্ধ করে আলু ছিলে হাত দিয়ে ভেঙ্গে ছোটছোট দানা করে রেখে দিতে হবে। আলু শুধু ভেঙ্গে দিবেন, পেস্ট করবেন না।

(২) ডাবলি বুট ভেজানো হলে ভালোভাবে ধুয়ে একটি বড় পাত্রে নিয়ে এর সাথে পেঁয়াজ কুচি, মরিচগুঁড়া, জিরা, ধনিয়া, বেকিং সোডা, লবণ, তেল ও প্রয়োজনমতো পানি দিয়ে সিদ্ধ করতে হবে। চাইলে প্রেশার কুকার-এ সিদ্ধ করে নিতে পারেন, তাড়াতাড়ি হবে।

(৩) ডাল সিদ্ধ হলে তারপর হলুদ দিতে হবে, আর সিদ্ধ করে ভেঙ্গে রাখা আলুগুলোও এখন দিয়ে নেড়ে দিন। ডালের পানি পছন্দমতো ঘন হয়ে এলে লবণ দেখে (লাগলে দিয়ে) নামিয়ে ফেলুন । চটপটির জন্য ডাল রেডি, এবার তেতুলের টক তৈরির পালা।

(৪) এখন তেঁতুলগুলো ১ কাপ পানিতে ভিজিয়ে রেখে হাত দিয়ে কচলে তেঁতুলের ক্বাথ বের করে নিতে হবে। তেঁতুলগুলো নরম হয়ে পানিতে মিশে গেলে তেঁতুলের বীচি ও আঁশ বেছে ফেলে দিয়ে তারপর ছেঁকে নিতে হবে। এবার টক তৈরির জন্য তেঁতুলের ক্বাথ রেডি।

(৫) এবার একটি পাত্রে তেল গরম করে শুকনা মরিচ ছিড়ে কুঁচি করে তেলে দিয়ে ভাজতে হবে। মরিচ পুড়িয়ে ফেলবেন না, ভাজা হলে জিরা গুড়া দিয়ে তেঁতুলের ক্বাথ দিয়ে নাড়তে থাকুন।

(৬) এরপর এতে বিট লবণ, লবণ ও চিনি দিয়ে নাড়তে থাকুন। চটপটির জন্য যে তেঁতুলের টক বানানো হয় তা একটু ঘন হয় আর ফুচকার টক একটু পাতলা হয়। আপনি আপনার প্রয়োজন মত পানি মিশিয়ে পাতলা বা ঘন তেঁতুলের টক তৈরি করতে পারেন। টেষ্ট করে দেখুন, লবণ বা চিনি লাগলে দিন। ২-৩ মিনিট পরেই নামিয়ে ফেলুন, সহজেই তৈরি হয়ে গেল তেঁতুলের টক। এবার আপনি চটপটি পরিবেশনের জন্য রেডি।
পরিবেশন

একটি পরিবেশন পাত্রে প্রথমে ডালের মিশ্রণ নিয়ে তার উপর ধনিয়া পাতা কুঁচি, কাঁচা মরিচ কুঁচি, পেঁয়াজ কুঁচি, শসা কুঁচি, সিদ্ধ ডিমের ঝুরি এবং সবশেষে ফুচকার ঠোসা বা নিমকপারা ভেঙ্গে দিয়ে তেঁতুলের টকের সাথে পরিবেশন করুন দারুণ মজার চটপটি।
সংরক্ষন

চটপটির ডাল রান্না করে বক্সে ভরে ডিপ ফ্রিজে রেখে দেয়া যায়, পরে প্রয়োজনে বের করে শুধু গরম করে বাকি উপকরণ দিয়ে পরিবেশন করা যায়। তবে টাটকা বানিয়ে খেতে বেশি মজা।