চবি ভর্তি আবেদন প্রক্রিয়া শুরু

0
71

চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে (চবি) ২০১৯-২০ শিক্ষাবর্ষে স্নাতক (সম্মান) প্রথম বর্ষের ভর্তি পরীক্ষার আবেদন প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। রোববার (৮ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের চলতি দায়িত্বপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার এ ভর্তির আবেদন প্রক্রিয়া উদ্বোধন করেন।

ভর্তির আবেদন কার্যক্রম চলবে ৩০ সেপ্টেম্বর রাত ১২টা পর্যন্ত। ১ অক্টোবর রাত ১২টা পর্যন্ত নির্ধারিত আবেদন ফি জমা দেওয়া যাবে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অ্যাকাডেমিক শাখার প্রধান আকবর হোসেন জানান, এবার ৪টি ইউনিট ও ২টি উপ–ইউনিটের মাধ্যমে ভর্তি কার্যক্রম সম্পন্ন হবে। ৪৮টি বিভাগ ও ৫টি ইনস্টিটিউটে ৪ হাজার ৯২৬টি আসনের জন্য শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। এর মধ্যে সাধারণ আসন ৪ হাজার ১৮৯টি ও কোটা ৭৩৭টি। ভর্তির আবেদনের জন্য ইউনিট ও উপ-ইউনিট প্রতি একজন শিক্ষার্থীকে দিতে হবে ৪৭৫ টাকা।

‘এ’ ইউনিটের অধীনে রয়েছে চারটি অনুষদ। এগুলো হলো: বিজ্ঞান, জীববিজ্ঞান, ইঞ্জিনিয়ারিং ও মেরিন সায়েন্সেস অ্যান্ড ফিশারিজ অনুষদ। চার অনুষদে মোট সাধারণ আসন ১ হাজার ২১৪টি। আবেদনের ন্যূনতম যোগ্যতা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে (চতুর্থ বিষয়সহ) মোট জিপিএ ৭.৫০ এবং যেকোনো একটি পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ ৩.৫০ থাকতে হবে।

কলা ও মানববিদ্যা অনুষদভুক্ত ‘বি’ ইউনিটে উচ্চমাধ্যমিকে উত্তীর্ণ সব গ্রুপের শিক্ষার্থীরা আবেদন করতে পারবেন। আবেদনের ন্যূনতম যোগ্যতা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে চতুর্থ বিষয়সহ মোট জিপিএ ৭.০০। এতে যেকোনো একটি পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ ৩.২৫ থাকতে হবে। এই ইউনিটে বিভাগ রয়েছে মোট ১৩টি। ‘বি’ ইউনিটে (নাট্যকলা, চারুকলা ও সংগীত বিভাগ ব্যতীত) মোট সাধারণ আসন ১ হাজার ২২১টি। সংগীত, চারুকলা ও নাট্যকলা বিভাগে ভর্তি পরীক্ষা দিতে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের আলাদাভাবে বি-১ ইউনিটে আবেদন করতে হবে। এই উপ-ইউনিটে মোট সাধারণ আসন ১২৫টি।

ব্যবসায় প্রশাসন অনুষদভুক্ত ‘সি’ ইউনিটে সাধারণ আসন ৪৪২টি। এই ইউনিটে আবেদনের ন্যূনতম যোগ্যতা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে (চতুর্থ বিষয়সহ) মোট জিপিএ ৭.৫০। এখানে বিভাগ রয়েছে ছয়টি।

অন্যদিকে সব গ্রুপের শিক্ষার্থীরাই ‘ডি’ ইউনিটে পরীক্ষা দিতে পারবেন। এখানে সমাজবিজ্ঞান অনুষদের নয়টি বিভাগ, আইন অনুষদের অধীনে থাকা আইন বিভাগ, ব্যবসায় প্রশাসনের অনুষদের সব বিভাগ, জীববিজ্ঞান অনুষদের ভূগোল ও পরিবেশবিদ্যা এবং মনোবিজ্ঞান বিভাগ রয়েছে। ‘ডি’ ইউনিটে আবেদনের যোগ্যতা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিকে (চতুর্থ বিষয়সহ) মোট জিপিএ ৭.০০ ও যেকোনো একটি পরীক্ষায় ন্যূনতম জিপিএ ৩.২৫ থাকতে হবে। এ ছাড়া শিক্ষা অনুষদভুক্ত ডি-১ উপ-ইউনিটে আগ্রহী শিক্ষার্থীদের আলাদাভাবে আবেদন করতে হবে।

সময়সূচি নির্ধারণ করা হয়েছে- ২৭ অক্টোবর বি ইউনিট, ২৮ অক্টোবর ডি ইউনিট, ২৯ অক্টোবর এ ইউনিট, ৩০ অক্টোবর সি ইউনিট, ৩১ অক্টোবর বি১ উপ-ইউনিট ও ডি১ উপ-ইউনিটের ভর্তি পরীক্ষা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার কেএম নূর আহমেদ বলেন, সকাল ১১টায় ভারপ্রাপ্ত উপাচার্য অধ্যাপক ড. শিরীণ আখতার ভর্তির অনলাইন আবেদন কার্যক্রম উদ্বোধন করেছেন। এ কার্যক্রম চলবে ৩০ সেপ্টেম্বর রাত ১২টা পর্যন্ত।