চাঁদপুর-শরীয়তপুর ফেরিঘাটে ৬ শতাধিক ট্রাক আটকা পড়েছে

0
2

চাঁদপুর-শরীয়তপুর ফেরিঘাটে শরীয়তপুর অংশে ৬ শতাধিক মালবাহী ট্রাক আটকা পড়েছে। দু’টি ফেরির একটি অচল হয়ে যাওয়ায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

এদিকে গত ১০ দিন ধরে একটি ফেরি অচল হয়ে পড়ায় এ রুটে দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

চাঁদপুর-শরীয়তপুর ঘাট দিয়ে দু’টি ফেরি নিয়মিত চলাচল করলেও গত ১০ দিন ধরে একটি ফেরি অচল হয়ে পড়েছে। প্রতি ২৪ ঘণ্টায় এ রুটে শতাধিক গাড়ি পারপার হতো। বর্তমানে একটি ফেরি দিয়ে অর্ধেক যান পারাপার করছে। ২৪ ঘণ্টায় একটি ফেরিতে মাত্র ৫০-৬০টি গাড়ি পার করায় বাকি গাড়ি আটকে পড়ায় দীর্ঘ যানজট সৃষ্টি হয়েছে।

কুমিল্লাগামী কাঠভর্তি ট্রাক নিয়ে আসা ড্রাইভার সাইফুল ইসলাম বলেন, ‘গত ৪ দিন ধরে ঘাটে অপেক্ষা করছি। কবে পার হবো এখনো বলতে পারছি না।’

খুলনা থেকে চট্টগ্রামগামী পাটভর্তি ট্রাক নিয়ে আসা গাড়িচালক হাসান বলেন, ৩ দিন, ৩ রাত ফেরিঘাটে বসে আছি। আরো দু’দিন সময় লাগতে পারে।’

খুলনা জুটমিলের আরেক পাটভর্তি ট্রাকচালক সোহেল বলেন, ‘৫ দিন ধরে ঘাটে আটকে আছি।’

ঘাট ইজারাদার জিতু মিয়া বেপারি বলেন, ‘১০ দিন ধরে একটি ফেরি দিয়ে গাড়ি পার হচ্ছে। এতে ঘাটে ভয়াবহ যানজটের সৃষ্টি হয়েছে।’
ট্রাক-আটকাফেরি সার্ভিসের ম্যানেজার মো. ইমরান বলেন, ‘দু’টির মধ্যে একটি ফেরির ইঞ্জিন বিকল হওয়ায় ঘাটে একটু চাপ বেড়েছে। আগামি রোববার অকেজো ফেরিটি সচল হবে বলে আশা করছি। এরপর আর জট থাকবে না।’

এদিকে চাঁদপুর-শরীয়তপুর ফেরিঘাট দিয়ে চট্টগ্রাম থেকে খুলনা ও বরিশালের বিভিন্ন পণ্যবাহী ট্রাক ও যাত্রীবাহি বাস চলাচল করলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অবহেলায় বার-বার লোকজনকে হয়রানীর শিকার হতে হচ্ছে। এ ঘাটে ২ থেকে ৩টি ফেরি প্রয়োজন হলেও সংশ্লিষ্টদের অবহেলায় লক্কর-ঝক্কর মার্কা পুরনো দু’টি ফেরি দিয়ে পারাপার করা হচ্ছে।

এছাড়া রয়েছে ইজারাদারদের দৌরাত্ম্য। তারা ইচ্ছেমতো গাড়ি থেকে চাঁদা উঠাচ্ছে, টাকার বিনিময়ে আগের গাড়িকে পরে পরের গাড়িকে আগে ফেরি পারের সুযোগ দিচ্ছে। ক্ষমতাশীন দলের প্রভাবশালীদের ছত্রছায়ায় তারা প্রশাসনকে তেমন একটা তোয়াক্কা করে না।