চুয়েটের সহকারী অধ্যাপক ড. এইচ. এম. এ. আর. মারুফ এর পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন  

0
24

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট)-এর পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক ড. এইচ. এম. এ. আর. মারুফ সম্প্রতি পদার্থ বিজ্ঞানের সুপার-কন্ডাক্টিভিটির বিষয়ে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেছেন। তাঁর গবেষণার বিষয়বস্তু ছিল- “ইভালিউশন অফ দি ক্যারেক্টারিস্টিক প্যারামিটারস ফর মাল্টি জাংশন এসি জোসেফশন ইফেক্ট ইন সুপারকন্ডাক্টর” (Evaluation of the Characteristic Parameters for Multi Junction AC Josephson Effect in Superconductor)। তিনি চুয়েটের পদার্থ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. ফারুক-উজ-জামান চৌধুরী এবং চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল ইসলাম-এর তত্ত্বাবধানে উক্ত পিএইচডি গবেষণা সম্পন্ন করেন। গত ১১ মার্চ, ২০২০ খ্রি. চুয়েটের ১১৬তম সিন্ডিকেট সভায় তাঁর পিএইচডি ডিগ্রীর অনুমোদন দেওয়া হয়। প্রসঙ্গত, বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক জার্নালে তাঁর গবেষণা কর্ম গৃহীত হয়েছে। দেশেও তিনি বিভিন্ন কনফারেন্সে গবেষণাকর্ম উপস্থাপন করেছেন।

গবেষণা প্রসঙ্গে ড. এইচ. এম. এ. আর. মারুফ জানান, সুপারকন্ডাক্টিভিটির বিষয়ের বহুল পরিচিত মাল্টি জোসেফশন জাংশনের বিভিন্ন বৈশিষ্ট্যপূর্ণ প্যারামিটার নির্ণয় করে এর টেকনোলজিক্যাল ব্যবহার কিভাবে করা যায় গবেষণা কর্মে তা নিয়ে আলোচনা করা হয়। উক্ত গবেষণায় বর্তমান বিশ্বের অন্যতম  কোয়ানটাম কম্পিউটেশন, কোয়ান্টাম ইন্টারফেরোমিটার, টেরাহার্জ তরঙ্গ নিঃসরনে মাল্টি জোসেফশন জাংশন মডেলে এর ব্যবহারে নিয়ে দিক নির্দেশনা  প্রদান করা হয়।

উল্লেখ্য, ড. এইচ. এম. এ. আর. মারুফ চট্টগ্রাম সরকারি মুসলিম উচ্চ বিদ্যালয় থেকে এস.এস.সি. এবং চট্টগ্রাম সরকারি হাজী মুহাম্মদ মহসিন কলেজ থেকে এইচ.এস.সি. পরীক্ষায় প্রথম বিভাগে উর্ত্তীণ হন। পরে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় হতে পদার্থবিদ্যায় স্নাতক ও স্নাতকোত্তর থিসিস গ্রুপে প্রথম স্থান অধিকার করেন। অতঃপর চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয় (চুয়েট) থেকে এম.ফিল. ডিগ্রি সম্পন্ন করেন এবং সর্বশেষ ২০১৯ সালে পিএইচডি ডিগ্রী অর্জন করেন। তিনি প্রবীণ প্রধান শিক্ষক জনাব মোহাম্মদ আব্দুল লতিফ ও ফাতেমা বেগম-এর একমাত্র পুত্র।