ছাত্রদল নেতা নুরু হত্যার বিচার বিভাগীয় তদন্ত দাবি

0
3

কেন্দ্রিয় ছাত্রদল নেতা নুরুল আলম নুরুকে পুলিশ পরিচয় দিয়ে বাসা থেকে তুলে নিয়ে গুলি করে রাতের আধাঁরে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়েছে অভিযোগ করে এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল্লাহ আল নোমান।

বৃহস্পতিবার সংবাদ মাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি বলেন, জঘন্যতম এই হত্যাকাণ্ডের নিন্দা জানানোর ভাষা হারিয়ে ফেলেছি।সারাদেশে বিএনপি নেতাকর্মীদের যেভাবে গুম করে হত্যা করা হচ্ছে ঠিক একইভাবে চট্রগ্রাম উত্তর জেলা ছাত্রদলের সাবেক যুগ্ন আহবায়ক নুরুল আলম নুরুকে হত্যা করা হয়েছে।

আবদুল্লাহ আল নোমান ছাত্রদল নেতা নুরুল আলম নুরু হত্যাকাণ্ডের বিচার বিভাগীয় তদন্তের দাবি জানিয়ে অবিলম্বে ঘটনার সাথে জড়িতদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির আহবান জানান।

বুধবার রাত সাড়ে ১১টার দিকে নগরীর কাতালগঞ্জ এলাকার বাসা থেকে নুরুকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেছে বিএনপি নেতারা। নিজ বাড়ি থেকে আনুমানিক ৫ কিলোমিটার দূরে কর্ণফুলী নদীর তীর থেকে ছাত্রদল নেতা নুরুল আলম নুরুর (৪৫) মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ।

সকাল থেকে ফেসবুকে মরদেহের ছবি ছড়িয়ে পড়লেও পুলিশ শুরু থেকে বিষয়টি এড়িয়ে যাবার চেষ্টা করছিল। শেষ পর্যন্ত বৃহস্পতিবার (৩০ মার্চ) দুপুর ২টার দিকে পুলিশ ঘটনাস্থলে যায়। তুলে নেওয়ার প্রায় সাড়ে ১৩ ঘণ্টা পর বিকেল ৪টার দিকে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে। রাউজান উপজেলার বাগোয়ান ইউনিয়নের কোয়েপাড়া গ্রামের খেলাঘাট এলাকায় উপুড় হয়ে ছিল তার মরদেহ।