জোড়া খুনের আসামী আবুল কালামের আদালতে আর্ত্বসমর্পন, জেল হাজতে প্রেরণ

0
13

শফিউল আলম ,নিউজচিটাগাং২৪.কম।।
গত ২২ জুলাই রাউজানের সুলতানপুর এলাকায় বড় ভাই আবুল কালাম আজাদের ছুরিকাঘাতে নিহত হয় ছোট দুই ভাই আবু Gatok abul kalam Raozan murderসুফিয়ান আজাদ ও আবু মোরশেদ আজাদ । ঘটনার পর খুনি আবুল কালাম পালিয়ে যায় । ঘটনার একদিন পর গত ২৩ জুলাই রাতে নিহত আবু সুফিয়ানের সহধর্মীনী নাসরিন সুলতানা বাদী হয়ে রাউজান থানায় ঘাতক আবুল কালাম ও তৌহিদুল ইসলামকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন । দুই সহোদর হত্যাকান্ডের পর রাউজান থানা ওসি এনামুল হক ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা এস আই হোসাইনের নেতৃত্বে রাউজান থানার পুলিশ রাউজান, ফটিকছড়ি, চট্টগ্রাম শহরের বিভিন্ন এলাকায় আবুল কালাম কে ধরতে বিরামহীন অভিযান চালায় । পুলিশের ধারাবাহিক অভিযানে খুনি আবুল কালাম আজাদ ঠিকতে না পেয়ে রবিবার সকাল দশটার সময় চট্টগ্রাম চীপ জুডিশিয়াল ম্যজিষ্ট্রেট আবু সালেম নোমানের আদালতে আর্ত্বসমর্পন করেন । জোড়া খুনের মামলার আসামী আবুল কালাম আজাদকে আদালত জেল হাজতে প্রেরণের নির্দেশ প্রদান করেন । ঘুনি আবুল কালাম আজাদ আদালতে আর্ত্বসমর্পন করার সংবাদ পেয়ে মামলার বাদী নাসরিন সুলতানা স্বস্তি প্রকাশ করে বলেন, আবুল কালাম আমার ভাসুর সেই ভাই হয়ে নিজ দুই ভাইকে হত্যা করলো তা কিছুইতেই মেনে নেওয়া যাচ্ছেনা । খুনী আবুল কালামের কঠোর শাস্তির দাবী জানান মামলার বাদী নাসরিন সুলতানা । কবরস্থানের যাতায়াতের রাস্তার জায়গার জন্য বিরোধ সৃষ্টি হলে আবুল কালাম কার দুই ভাইকে নির্মমভাবে ছুরিকাঘাত করে প্রকাশ্য দিবালোকে হত্যা করে পারিয়ে যায় ।নিহত আবু সুফিয়ান আজাদের স্ত্রী নাসরিন আক্তার তার স্বামীকে হারিয়ে একমাত্র ছয় বৎসর বয়সের কন্যা সন্তান নুসরাত তার পিতাকে হারিয়ে শোকে মুহ্যমান্য হয়ে পড়েছে । নিহত মোরশেদের স্ত্রী কমলা ও একমাত্র পুত্র সন্তান মঈনুর কান্না থামছেনা মোরশেদের হত্যাকান্ডের ঘটনার রাউজান থানার ওসি এনামুল হক নিউজচিটাগাং২৪.কমকে জানান দুই সহোদর হত্যাকারী তাদের আপন বড়ভাই ঘাতক আবুল কালামকে গ্রেফতার করার জন্য রাউজান, ফটিকছড়ি, চট্টগ্রাম শহরের বিভিন্ন এলাকায় পুলিশের কয়েকটি দল বিনামহীন অভিযাণ চালিয়েছে । ফলে আবুল কালাম আদালতে আর্ত্বসমর্পন করতে বাধ্য হয়েছে ।