টেকনাফ ৪৪ হাজার ইয়াবা উদ্ধার, নারীসহ আটক-২   

0
29
শামসুউদ্দীন  টেকনাফ (কক্সবাজার) প্রতিনিধি। কক্সবাজারের টেকনাফ উপজেলায় ৪৩ হাজার ৯৫০ পিস ইয়াবা বড়ি উদ্ধার করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ বিজিবি। এ ঘটনায় নারীসহ দুইজনকে আটক করা হয়েছে। তার মধ্যে আটক নারীর পেটের ভেতর থেকে ৩ হাজার ৯৫০পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়।
ধৃতরা হলেন-টেকনাফের হোয়াইক্যং ইউনিয়নের পশ্চিম সাতঘরিয়া পাড়া এলাকার মৃৃত হোসন আলীর ছেলে আব্দুল মজিদ (৩৯) ও ফরিদপুর জেলার নগরকান্দা ভাটিকামারী নিখরহাটি মোহাম্মদ মনির লিটনের স্ত্রী আছমা বেগম ।
 বিষয়ে জানাতে সোমবার দুপুর ১ টার দিকে টেকনাফস্থ ২ বিজিবি ব্যাটলিয়ান সদর দপ্তরে অধিনায়ক লে. কর্নেল ফয়সল হাসান খান (পিএসসি) সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেন। এ সময় উপস্থিত ছিলেন মেজর রুবায়াৎ কবীর।লে. কর্নেল ফয়সল হাসান খান বলেন, টেকনাফের সাতঘরিয়া পাড়ার আব্দুল মজিদের বসত বাড়ীতে ইয়াবার চালান মজুদ রাখার গোপন সংবাদের খবরে, রবিবার বিকেলে বিজিবির একটি দল তার বাড়িতে অভিযানে যায়। এসময় তার বসত ঘরের পিছনে তল্লাশি চালিয়ে সন্দেহ মুলক পলিটিনের একটি স্তুপ থেকে প্লাষ্টিক মোড়ানো অবস্থায় ৪০ হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া যায়। এসময় তাকে আটক করা হয়। উদ্ধার ইয়াবার আনুমানিক মূল্য ১ কোটি ২০ লাখ টাকা বলে জানায়।
তিনি আরও বলেন, ‘একই দিন দুপুরে টেকনাফ থেকে এক নারী ইয়াবা বহন করে ঢাকা নিয়ে যাবার খবরে বিজিবির  আরেকটি দল হ্নীলার মৌলভী বাজারের নতুন ব্রিজে এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে। এসময় এক নারী চলাচল সন্দেহ হলে থামিয়ে তল্লাশি কালে তার পেটে ইয়াবা থাকার কথা স্বীকার করেন। পরে স্বাস্থ্যাকমপ্লেক্সে নিয়ে আল্ট্রাসনোগ্রামে তার পেটে বহু সংখ্যক ক্যাপসুল রয়েছে বলে নিশ্চিত করা হয়। পরবর্তীতে কৌশলে তার পেট থেকে ৩ হাজার ৯৫০পিস ইয়াবা উদ্ধার করা হয়। উদ্ধার ইয়াবার আনুমানিক মূল্য ১১ লাখ ৮৫ হাজার টাকা বলে জানায়। সীমান্তে বিজিবি কঠোর অবস্থানে থাকায় ইয়াবা পাচারকারিরা ধরা পরছে উল্লেখ করে বিজিবির এই কর্মকর্তা বলেন, কোন মাদক ব্যবসায়ী ও পাচারকারি ছাড়া পাবে না। ইয়াবাসহ ধৃতদের মাদক মামলা দিয়ে থানায় হস্তান্তরের প্রস্তুতি চলছে।’