ট্রেনে খোলা খাবার বিক্রি ও প্লাস্টিকের কাপ নিষিদ্ধ হচ্ছে

0
85

ট্রেনে যাত্রীদের খোলা খাবার বিক্রি ও প্লাস্টিক বা সিরামিক কাপে চা পরিবেশন নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। ২৫ ফেব্রুয়ারি (মঙ্গলবার) থেকে এ সিদ্ধান্ত কার্যকর হবে।

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের সঙ্গে ট্রেনের ক্যাটারিং সার্ভিসের কর্মকর্তাদের বৈঠকে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের সদস্য মো. রেজাউল করিম বলেন, ট্রেনে মানসম্মত খাদ্য পরিবেশন দেয়ার লক্ষে ট্রেনের ক্যাটারিং সার্ভিসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠকে ৪টি সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এরমধ্যে সবেচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত হলো ট্রেনে কোনো অবস্থাতেই যাত্রীদের কাছে খোলা খাবার ও প্লাস্টিক বা সিরামিক কাপে চা বিক্রি করা যাবে না।

তিনি জানান, এছাড়াও ২৫ ফেব্রুয়ারির মধ্যে যেসব স্থান বা প্রতিষ্ঠান থেকে খাবার সংগ্রহ করে ক্যাটারিং সার্ভিস, সে সবের নাম ঠিকানা নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের কাছে দাখিল করতে হবে। ওইসব কারখানা বা কিচেন পরিদর্শন করবে নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ। পরিবেশ খারাপ পাওয়া গেলে জরিমানা, সিলগালাসহ উভয়কে শাস্তি দেয়া হবে।

২৬ ফেব্রুয়ারির থেকে যাত্রীদের খাবার পরিবেশন করার পর বাধ্যতামূলক রশিদ বা মেমো দিতে হবে। যাত্রী নিতে না চাইলেও জোর করে রশিদ ধরিয়ে দিতে হবে। সকল ইন্টারসিটি ট্রেনে ড্রেস কোড মেনে চলতে হবে। ট্রেনে হ্যান্ড গ্লাভস, ক্যাপ বাধ্যতামূলক।

এছাড়া ২৫ ফেব্রুয়ারি থেকে খোলা খাবার বিক্রি করা যাবে না। খাবার মোড়কবদ্ধ হতে হবে এবং চা, কফি ওয়ান টাইম কাগজের কাপে হতে হবে। প্লাস্টিকের কাপ বা সিরামিক সম্পূর্ণ ব্যবহার নিষিদ্ধ থাকবে বলে জানান মো. রেজাউল করিম।

রেলওয়ের পূর্বাঞ্চলের প্রধান বাণিজ্যিক কর্মকর্তা নাজমুল ইসলাম বলেন, নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ ক্যাটারিং সার্ভিসের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বসেছেন। তারা বেশকিছু ভালো সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। আমরা তাদের সহযোগিতা করব।