‘ডিজিটাল সেবা গ্রহণে এখন গ্রামও এগিয়ে যাচ্ছে’- চুয়েট ভিসি

0
35

চট্টগ্রাম প্রকৌশল ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে (চুয়েট) “সত্য-মিথ্যা যাচাই আগে, ইন্টারনেটে শেয়ার পরে” প্রতিপাদ্যকে সামনে নিয়ে ৩য় বারের মত বর্ণাঢ্য আয়োজনে ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবস-২০১৯’ উদযাপিত হয়েছে। এ উপলক্ষে অদ্য ১২ ডিসেম্বর (বৃহস্পতিবার), ২০১৯ খ্রি. সকাল ১০.৪০ ঘটিকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের নতুন প্রশাসনিক ভবনের সামনে থেকে এক আনন্দ র‌্যালি বের করা হয়। এতে নেতৃত্ব দেন চুয়েটের মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম। র‌্যালিটি বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান ফটক, মেডিকেল সেন্টার ও গোল চত্ত্বর হয়ে ক্যাম্পাসের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। র‌্যালিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন অনুষদের ডীন, ইনস্টিটিউট পরিচালক, বিভাগীয় প্রধান, সেন্টার চেয়ারম্যান, আবাসিক হলের প্রভোস্টগণসহ শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী এবং ছাত্র-ছাত্রীগণ অংশগ্রহণ করেন। এ সময় র‌্যালিতে অংশগ্রহণকারীরা ডিজিটাল বাংলাদেশের সুযোগ-সুবিধা সম্বলিত বিভিন্ন প্লে-কার্ড ও ফেস্টুন বহন করেন।

এ উপলক্ষে প্রশাসনিক ভবনের সামনে এক সংক্ষিপ্ত সভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় প্রধান অতিথির বক্তব্যে চুয়েটের মাননীয় ভাইস চ্যান্সেলর অধ্যাপক ড. মোহাম্মদ রফিকুল আলম বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য ও গতিশীল নেতৃত্বে ডিজিটাল সেবা ও সুবিধা দেশব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে। গ্রামের মানুষেরাও এখন ডিজিটাল সুবিধা প্রাপ্তিতে এগিয়ে যাচ্ছে।

চুয়েট ভিসি আরো বলেন, “সত্য-মিথ্যা যাচাই আগে, ইন্টারনেটে শেয়ার পরে” এবারের ডিজিটাল বাংলাদেশ দিবসের একটি সময়োপযুগী প্রতিপাদ্য। সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে গুজব ছড়ানোর জন্য প্রতিক্রিয়াশীল গোষ্ঠী মুখিয়ে আছে। সামাজিক এই প্ল্যাটফর্মকে যাতে কেউ অপব্যবহার করতে না পারে সেজন্য আমাদের সবাইকে সচেতন হতে হবে। একইসাথে অন্যদের সচেতন করারও দায়িত্ব নিতে হবে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন চুয়েট জাতীয় দিবস উদযাপন কমিটির সভাপতি ও পুরকৌশল অনুষদের ডীন অধ্যাপক ড. মো. রবিউল আলম।