ডিমের পাতুরি

0
108

ডিম পছন্দ করেন না, এমন মানুষের তালিকাটা বোধহয় খুব একটা দীর্ঘ হবে না। সকালের খাবার থেকে নৈশভোজ… সর্বত্র বিরাজমান ডিম। অমলেট, ভুজিয়া বা সিদ্ধ, যেভাবেই রান্না করুন, ডিম সহজেই উপাদেও হয়ে ওঠে নিজ গুণে। আর সরিষা দিলে যে কোনও খাবারের স্বাদই বেড়ে যায় বহুগুণ। আজ একটু পাতুরি চেখে দেখুন। পাতুরি বললেই অবশ্য মাছের কথাই মনে হয়। ভেটকি, ইলিশ, চিংড়ি… আরও কত রকম মাছের পাতুরির স্বাদ বাঙালি জানে। তবে আজ পাতে থাক ডিমের পাতুরি।

ডিমের পাতুরি বানাতে লাগবে

১. সিদ্ধ ডিম ৪টি,

২. দুই চামচ জিরা গুড়া,

৩. দুই চামচ গরম মশলার গুঁড়া,

৪. দুই চামচ লাল মরিচের গুঁড়া,

৫. ময়দা ৫০ গ্রাম,

৬. আধা কাপ পেঁয়াজ কুচি,

৭. ধনেপাতা ২ আঁটি,

৮. দুই চামচ কাঁচা মরিচ বাটা,

৯. আধা কাপ পোস্ত বাটা,

১০. এক কাপ নারকেল কোরানো,

১১. রসুন ৪ কোয়া,

১২. সামান্য চিনি,

১৩. পরিমাণ মতো সরিষার তেল,

১৪. স্বাদ মতো লবণ,

১৫. আগুনে সেঁকে রাখা কলা পাতা।

ডিমের পাতুরি বানানোর পদ্ধতি

সাদা আর কালো সরিষা, নারকেল কোরা, রসুন, পোস্ত, কাঁচামরিচ ঠাণ্ডা পানিতে মিশিয়ে ২০-২৫ মিনিট রেখে দিন। ২০-২৫ মিনিট পরে সব কিছু একসঙ্গে মিহি করে বেটে মসৃণ মিশ্রণ তৈরি করুন। ডিম সেদ্ধ করে মাঝামাঝি সমানভাবে কেটে নিন। ময়দা পানিতে গুলে ব্যাটার বানিয়ে নিয়ে প্রতিটা ডিমের টুকরা তাতে ডুবিয়ে হালকা তেলে ভেজে তুলে নিন। আলাদাভাবে আর একটা পাত্রে তেল গরম করে হলুদ দিয়ে পেঁয়াজ ভেজে নিন। এর পর লবণ-চিনি আর সরিষা-পোস্ত-নারকেলের মিশ্রণ ঢেলে ১০ মিনিট কষিয়ে নিন। এবার এই মশলার মধ্যে ভাজা ডিম দিয়ে হালকাভাবে নেড়ে নিন। মিনিট দুয়েক পর ওপরে ধনেপাতা আর কয়েক ফোঁটা সরিষার তেল ছড়িয়ে কলা পাতার মধ্যে মশলা মাখানো সিদ্ধ ডিম মুড়ে সুতা অথবা টুথপিক দিয়ে আটকে নিন। এর পর একটা প্যানে তেল গরম করে মুড়ে রাখা কলা পাতাগুলো দিয়ে ঢেকে দিন। পাতার দুই দিক লাল হয়ে পুড়ে এলে নামিয়ে নিন। এবার গরম গরম পরিবেশন করুন জিভে পানি আনা ডিমের পাতুরি।