ঢাকা দূতাবাসে একজন লেবার অ্যাটাশে নিয়োগ দেবে ইউএই

0
12

ইউএইবাংলাদেশ থেকে কর্মী নেয়া আরও সহজ করতে আগামী বছরের শুরুতে ঢাকা দূতাবাসে একজন লেবার অ্যাটাশে নিয়োগ দেবে সংযুক্ত আরব আমিরাত (ইউএই)। আমিরাত সফররত প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাতে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী শেখ আবদুল্লাহ বিন জায়েদ আল নাহিয়ান এ উদ্যোগের কথা জানিয়েছেন। রোববার দুপুরে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে হোটেলে এ সৌজন্য সাক্ষাৎ হয়। এ সময় ইউএই’র পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানান, আগামী বছরের শুরুতেই ঢাকায় একজন লেবার অ্যাটাশে নিয়োগের বিষয়টি তাদের বিবেচনায় রয়েছে। খবর বিডিনিউজের।

বৈঠকের পর পররাষ্ট্রমন্ত্রী এএইচ মাহমুদ আলী সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে আলোচনার এক পর্যায়ে আরব আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, আগামী বছরের শুরুর দিকে ঢাকায় আমিরাত দূতাবাসে একজন লেবার অ্যাটাশেকে পাঠানোর কথা ভাবছেন তারা। তাদের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এটা একটা ভালো উদ্যোগ। ইতিবাচক অগ্রগতি। আমরা কাজ করছি। সফর শেষে একটা যৌথ ইশতেহারের বিষয়ে আলোচনা চলছে। অত্যন্ত সৌহার্দপূর্ণ পরিবেশে সংযুক্ত আরব আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ও বাংলাদেশের সরকার প্রধানের সাক্ষাৎ হয় বলে জানান মাহমুদ আলী। সাক্ষাতে দ্বিপক্ষীয় বিভিন্ন বিষয় নিয়ে তাদের আলোচনা হয়। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের পর আরব আমিরাতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী তার সঙ্গেও বৈঠক করেন বলে জানিয়েছেন মাহমুদ আলী। তিন দিনের সফরে শনিবার সংযুক্ত আরব আমিরাতের রাজধানী আবুধাবিতে পেঁৗছেন প্রধানমন্ত্রী।

পায়রায় গভীর সমুদ্রবন্দরের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের আহ্বান : পটুয়াখালীর পায়রায় একটি গভীর সমুদ্রবন্দর নির্মাণের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্য দুবাই পোর্ট ওয়ার্ল্ড কর্তৃপক্ষকে আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। রোববার তার হোটেল স্যুটে দুবাই পোর্ট ওয়ার্ল্ডের চেয়ারম্যান সুলতান আহমেদ বিন সুলাইয়েমের সঙ্গে এক বৈঠকে তিনি এ আহ্বান জানান। বৈঠক শেষে পররাষ্ট্র সচিব এম শহিদুল হক সাংবাদিকদের বলেন, পায়রা বন্দর এরই মধ্যে চালু হওয়ায় প্রধানমন্ত্রী ও চেয়ারম্যান গভীর সমুদ্রবন্দর নির্মাণের ওপর গুরুত্ব আরোপ করেন। খবর বাসসের। শহিদুল হক বলেন, শেখ হাসিনা টেকনাফ থেকে মিরসরাই পর্যন্ত ১৫০ কিলোমিটার মেরিটাইম ড্রাইভওয়ে নির্মাণের সম্ভাব্যতা যাচাইয়ের জন্যও পোর্ট ওয়ার্ল্ড চেয়ারম্যানকে অনুরোধ জানিয়েছেন। তিনি বলেন, বৈঠকে বাংলাদেশের অবকাঠামোর উন্নয়নে বিভিন্ন প্রকল্পে দুবাই পোর্ট ওয়ার্ল্ড কর্তৃপক্ষের বিনিয়োগ নিয়ে আলোচনা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর উপদেষ্টা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের সচিব এম আবুল কালাম আজাদ ও একেএম শামীম চৌধুরী এ সময় উপস্থিত ছিলেন।