দুই মাস পর পুলিশের হাতে গ্রেফতার

0
71

যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে মারধর করেছিলেন মো. রহিম উল্লাহ (৪৮)। পরে গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান রহিমের স্ত্রী জান্নাত আরা বেগম প্রকাশ বুলু (৩০)। ঘটনার পরপরই চট্টগ্রাম থেকে পালিয়ে রংপুর চলে গিয়েছিলেন রহিম। প্রায় দুই মাস পর পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে আসামি।

৫ নভেম্বর থেকে টানা দুইদিন রংপুরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে ৭ নভেম্বর আসামি রহিম উল্লাহকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয় কর্ণফুলী থানা পুলিশ।

শুক্রবার (৮ নভেম্বর) সকালে আসামি রহিম উল্লাহকে চট্টগ্রাম নিয়ে আসা হয়। বিকেলে তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়।

কর্ণফুলী থানার পরিদর্শক (তদন্ত) জোবায়ের সৈয়দ বলেন, টানা দুইদিন রংপুরের বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে যৌতুকের জন্য স্ত্রীকে হত্যার দায়ে অভিযুক্ত মো. রহিম উল্লাহকে গ্রেফতার করা হয়েছে। শুক্রবার সকালে তাকে চট্টগ্রাম নিয়ে আসা হয়েছে। বিকেলে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হয়েছে তাকে।

কর্ণফুলী থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মো. মনিরুল ইসলাম বলেন, ২০০৭ সালে রহিম উল্লাহ ও জান্নাত আরা বেগম প্রকাশ বুলুর বিয়ে হয়েছিল। তাদের সংসারে দুইটি সন্তানও রয়েছে। পরে প্রথম স্ত্রীকে না জানিয়ে রহিম আরও একটি বিয়ে করেন।

তিনি বলেন, বিভিন্ন সময় বাবার বাড়ি থেকে যৌতুকের টাকা এনে দিতে জান্নাত আরা বেগমকে চাপ দিতেন রহিম উল্লাহ। গত ১২ সেপ্টেম্বর জান্নাত আরাকে মারধর করেন। ২০ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান জান্নাত আরা। পরে জান্নাত আরার ভাই বাদি হয়ে রহিম উল্লাহর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

গ্রেফতার এড়াতে রহিম উল্লাহ কর্ণফুলী এলাকা থেকে পালিয়ে রংপুর চলে গিয়েছিল বলে জানান এসআই মনিরুল ইসলাম।