নয়া সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের আহ্বান

0
9

নয়া সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের আহ্বানচট্টগ্রাম যুব বিদ্রোহের ৮৫ তম বার্ষিকী উদযাপন উপলক্ষ্যে আয়োজিত অনুষ্ঠানে বক্তরা বলেছেন, ‘মাস্টার দা যেই সাম্রাজ্যবাদের বিরুদ্ধে লড়াই করে জীবন দিয়েছেন, সেই সাম্রাজ্যবাদ এখনও ইরাক, আফগানিস্থান, ফিলিস্থিনসহ পৃথিবীর দেশে দেশে নিরীহ মানুষদের রক্ত ঝরাচ্ছে। মীরজাফরদের মত দালালরা সাম্রাজ্যবাদের প্রধান সহায়ক। পূর্বেকার শত্রুরা বহিঃশত্রু হওয়ার কারণে ছিল অস্পষ্ট। কিন্তু এখন দালালদের মুখে ভাইয়ের অবয়ব, বন্ধুর ছায়া। ফলে তাদের চিহ্নিত করা কঠিন। এসব মুখোশধারী সাম্রাজ্যবাদী দালালদের বিরদ্ধে তরুণ যুবাদের ঐক্যবদ্ধ সংগ্রাম চালিয়ে নিতে হবে।’

শনিবার বিকেলে নগরীর ডিসি হিলের নজরুল মঞ্চে বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন চট্টগ্রাম জেলার উদ্যোগে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের তারা এসব কথা বলেন।

যুব ইউনিয়ন চট্টগ্রাম জেলা কমিটির আহ্বায়ক ইমরান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও যুগ্ম আহ্বায়ক রিপায়ন বড়–য়ার সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন শ্রমিক নেতা কমরেড আহসান উল্লাহ চৌধুরী, বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ অধ্যাপক ড. এম এম আকাশ, কবি ও সাংবাদিক আবুল মোমেন, যুব ইউনিয়ন কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক হাসান হাফিজুর রহমান সোহেল, সহ সভাপতি ইঞ্জিনিয়ার আরিফ উল্লাহ হাই।

আলোচনা সভায় বক্তারা আরো বলেন, ‘দেশের যুব সমাজ আজ সামাজিক অবক্ষয়ের শিকার। ভোগবাদিতা ও অবক্ষয়ের এই সময়ে তরুণদেরই চট্টগ্রাম যুব বিদ্রোহের চেতনা ধারণ করে মুক্তিযুদ্ধের আদর্শে শোষণ বৈষম্য মুক্ত বাংলাদেশ গড়ার এই চ্যালেঞ্জ নিতে হবে।’

অনুষ্ঠানে উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী, যুব ইউনিয়ন সাংস্কৃতিক স্কোয়ার্ড গণসঙ্গীত, প্রমা আবৃত্তি পরিবেশন করে। এছাড়া বিশিষ্ট গণসঙ্গীত শিল্পী কফিল উদ্দিন ও ভিন্ন ধারার ব্যান্ড দল ‘মাদল’ গান পরিবেশন করে।

বাংলাদেশ যুব ইউনিয়ন চট্টগ্রাম জেলা কমিটির আহবায়ক ইমরান চৌধুরী ও যুগ্ন আহবায়ক রিপায়ন বড়ুয়া, উজ্জ্বল শিকদার এক বিবৃতিতে উক্ত কর্মসূচিতে দেশপ্রেমিক, প্রগতিশীল সকলকে স্বাধীন মুক্তমনা সমাজ প্রতিষ্ঠার সংগ্রামকে বেগবান করার আহবান জানান।

উল্লেখ্য চট্টগ্রাম যুব বিদ্রোহ দিবসে ১৯৩০ সনের ১৮ এপ্রিল অপার সাহস ও মাতৃভূমির প্রতি অসীম কর্তব্যনিষ্ঠা নিয়ে অগ্নিপুরুষ মাস্টারদা সূর্যসেনের নেতৃত্বে একদল অসম সাহসী যুবক চট্টগ্রামকে ৩ দিনের জন্য ব্রিটিশমুক্ত করেছিলেন।