পানছড়ি উপজেলা নির্বাচন: চেয়ারম্যান পদ প্রার্থী সবাই নতুন মুখ

0
2

নিউজ ডেস্ক: পঞ্চম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন প্রথম ধাপের নির্বাচন শেষ হতেই ১৮ মার্চ দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনের প্রার্থীরা মাঠে সরগরম হয়ে উঠেছে। পানছড়ি উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদের প্রার্থীরা সবাই নতুন মুখ। তাই কে হচ্ছেন এবারের উপজেলা চেয়ারম্যান? এ নিয়ে সাধারণ ভোটারদের মধ্যে আগ্রহের কমতি নেই।

৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পানছড়ি উপজেলার চেয়ারম্যান পদে আওয়ামী লীগের সমর্থিত প্রার্থী বিজয় কুমার দেব (নৌকা) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী মিটন চাকমা (আনারস), সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান শান্তি জীবন চাকমার (কাপ পিরিচ) মধ্যে চরম প্রতিদ্বন্দ্বী হচ্ছে।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়- পানছড়ি উপজেলায় ২৪,৫৭৩ জন পুরুষ ও ২৩.৯১২ জন নারী সহ মোট ভোটার ৪৮,৪৮৩ জন। গত উপজেলা নির্বাচনে ভোটার ছিল ৪২,৩৭১ জন। অর্থাৎ নতুন ভোটার ৬,১১২ জন। এলাকা জরিপ মতে- এবারের নির্বাচনে প্রায় সাড়ে ১৭ হাজার বাঙালি ও ৩১ হাজার উপজাতীয় ভোটার রয়েছে।

সরজমিনে প্রার্থী ও ভোটারদের সাথে আলাপ কালে আওয়ামী লীগের প্রার্থী বিজয় কুমার দেব বলেন, প্রধানমন্ত্রীর উন্নয়নের প্রতীক নৌকা মার্কাকে ভালোবেসে, আমাকে ভালোবেসে জনগণ নৌকা মার্কাকে বিজয়ী করবে। আমরা উন্নয়নে বিশ্বাসী। আধুনিক পানছড়ি গড়ার প্রত্যয়ে আমি সকলের সহযোগিতা ও ভোট প্রার্থনা করছি।

স্বতন্ত্রপ্রার্থী হলেও ইউপিডিএফ সমর্থিত লতিবান ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান শান্তি জীবন চাকমা বলেন, শান্তি, উন্নয়ন ও সু-শাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষে আমি জনগণের খেদমত আগেও করেছি, আগামীতেও কাজ করব। সুষ্ঠভাবে ভোটার ভোট দিতে পারলে আমার বিজয় হবেই।

ইউপিডিএফ (গনতান্ত্রিক) এর কেন্দ্রিয় কমিটির তথ্য ও প্রচার সম্পাদক মিটন চাকমা (স্বতন্ত্রপ্রার্থী) বলেন, আমরা অসাম্প্রদায়ীক চেতনায় বিশ্বাসী, প্রতিটি এলাকায় গণসংযোগে আমি পাহাড়ী-বাঙালি ভোটারদের সাড়া পেয়েছি। আমি নির্বাচিত হলে শিক্ষা-স্বাস্থ্য ও যোগাযোগ ব্যবস্থার উন্নয়ন সহ শিক্ষিত তরুন সমাজের কর্মসংস্থানের কাজ করব।

ভোটের মাঠে অভিজ্ঞদের ধারণা, গত উপজেলা নির্বাচনসমূহে পাহাড়ের আঞ্চলিক সংগঠন ইউপিডিএফ বিভক্ত হয়নি। বর্তমানে আধিপত্য বিস্তারে দ্বিধা-বিভক্ত ইউপিডিএফ দুটি ভাগে ভাগ হয়েছে। একটি ইউপিডিএফ অপরটি ইউপিডিএফ (গণতান্ত্রিক)। উপজাতিদের ভোট ভাগ হলে এবার নির্বাচনে আওয়ামী লীগের সমর্থিত প্রাথী জয়ী হতে পারে। অপরদিকে, উপজাতীয় ভোটারের ৫০% ও বাঙালি ভোটারের ১০% ভোট আনারস প্রতীক পেলে মিটন চাকমা জয়ী হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়াই হবে সাংবাদিক শাহজাহান কবির সাজু (উড়োজাহাজ), হারুনুর রশিদ (মাইক), জনেশ আয়ন চাকমা মুকুল (চশমা), চন্দ্র দেব চাকমা (তালা চাবি), মনিন্দ্র লাল ত্রিপুরা (টিয়া পাখি), প্রশান্ত চাকমা (টিউবওয়েল) মধ্যে। অন্যদিকে মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে লড়াই হবে মনিকা ত্রিপুরা (ফুটবল), মিলন বিবি (কলস), রত্না তঞ্চঙ্গা (হাঁস)।

অভিজ্ঞদের ধারণা, বিগত নির্বাচনে রত্মা তঞ্চঙ্গা বিপুল ভোটে জয়ী হলেও তিনি ভোটারদের দেওয়া প্রতিশ্রুতি রাখতে পারেননি বলে ভোটারদের মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে। তাই তিনি জয়ী নাও হতে পারেন। এবার মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে জনপ্রিয়তায় বিপুল ভোটে বিজয়ী হবেন মনিতা ত্রিপুরা। ভাইস চেয়ারম্যান পদে মারমা ও ত্রিপুরা ও বাঙালিদের মাঝে জনপ্রিয়তায় সাংবাদিক শাহজাহান কবির সাজু (উড়োজাহাজ) হওয়ার সম্ভাবনা বেশি।

পানছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও সহকারী রির্টানিং কর্মকর্তা মোহাম্মদ তৌহিদুল ইসলাম জানান, আসন্ন ৫ম উপজেলা পরিষদ নির্বাচন নিরপেক্ষ, সুষ্ঠ ও সুন্দরভাবে করার জন্য সকল পদক্ষেপ নেয়া হবে। এজন্য সকল প্রশাসনের সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে। আশা করি সুষ্ঠ, সুন্দর ও নিরপেক্ষভাবে নির্বাচন পরিচালনা করতে পারব।