প্রতিদিন হাঁটাহাঁটি

0
4

হার্ট ভালো রাখতে

হাওয়ার্ড মেডিক্যাল স্কুলের এক গবেষণা বলছে, সপ্তাহে মাত্র আড়াই ঘণ্টা হাঁটলে হার্ট অ্যাটাকে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা প্রায় ৩০ শতাংশ কমে যায়। হাঁটার সময় শরীরে রক্তপ্রবাহের ব্যাপক উন্নতি ঘটে।

ক্যান্সার দূরে রাখতে

২০১২ সালে হাওয়ার্ড ইউনিভার্সিটির উইমেনস হেলথ স্টাডিতে দেখা গেছে, সপ্তাহে এক থেকে তিন ঘণ্টা হাঁটার অভ্যাস করলে ব্রেস্ট ও ইউটেরাইন ক্যান্সারে আক্রান্তের আশঙ্কা কমে যায়। তাই নিয়মিত অন্তত কয়েক মিনিট হাঁটার অভ্যাস করা ভালো।

রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বাড়াতে

নিয়মিত ৩০-৪০ মিনিট হাঁটলে রোগ প্রতিরোধক্ষমতা বেড়ে যায়। ফলে স্বাভাবিকভাবেই ছোট-বড় কোনো রোগই ধারেকাছে ঘেঁষতে পারে না।

ওজন হ্রাসে

প্রতিদিন হাঁটাহাঁটি করলে ওজন বৃদ্ধির শঙ্কা কমে যায়। যেহেতু ওজন বৃদ্ধির সঙ্গে একাধিক রোগের সম্পর্ক আছে, তাই নিয়মিত হাঁটা উচিত।

মস্তিষ্কের ক্ষমতা বৃদ্ধি

২০১১ সালে ন্যাশনাল একাডেমি অব সায়েন্সে প্রকাশিত এক গবেষণায় দেখা যায়, সপ্তাহে তিন-চার দিন ৩০-৪০ মিনিট হাঁটলে ব্রেনের হিপোকম্পাস অংশের ক্ষমতা বেড়ে যায়। মস্তিষ্কের এই অংশটি মানুষের স্মৃতিশক্তির ভাণ্ডার হিসেবে পরিচিত।

হজমক্ষমতা বাড়াতে

নিয়মিত হাঁটলে হজমে সহায়ক পাচক রসের ক্ষরণ বাড়তে শুরু করে। ফলে কোষ্ঠকাঠিন্য, ডায়রিয়া ও কোলন ক্যান্সারের মতো রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমে যায়।

ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে

আমেরিকান ডায়াবেটিস অ্যাসোসিয়েশনের প্রতিবেদন অনুসারে, নিয়মিত ১০-৩০ মিনিট হাঁটলে ইনসুলিনের কর্মক্ষমতা বাড়ে। ফলে রক্তে শর্করার মাত্রা বৃদ্ধি পাওয়ার আশঙ্কা একেবারে কমে যায়।

অক্সিজেনসমৃদ্ধ রক্তের প্রবাহ বাড়াতে

বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে, নিয়মিত হাঁটলে মস্তিষ্কসহ পুরো শরীরে অক্সিজেনসমৃদ্ধ রক্তের প্রবাহ বেড়ে যায়। ফলে দেহের প্রতিটি অঙ্গের কার্যক্ষমতা বেড়ে যায়।