প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স প্রবাহে ধস অব্যাহত

0
10

প্রবাসীদের পাঠানো রেমিট্যান্স প্রবাহে ধস অব্যাহত রয়েছে। গত অর্থবছরের দ্বিতীয়ার্ধ থেকে রেমিট্যান্স প্রবাহ ক্রমেই নেতিবাচক ধারায় চলছে। এরই ধারাবাহিকতায় চলতি অর্থবছরের ৯ মাসে (জুলাই-মার্চ-১৪) সময়ে ১ হাজার ৪৭ কোটি ৯৪ লাখ মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স এসেছে। যা ২০১২-১৩ অর্থবছরের একই সময়ে ছিল ১ হাজার ১১২ কোটি ১৪ লাখ ডলার। সে হিসাবে চলতি অর্থবছরের ৯ মাসে রেমিট্যান্স কমেছে ৫.৭৭%। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রানীতি বিভাগের হালনাগাদ প্রতিবেদনে এসব তথ্য উঠে এসেছে। প্রতিবেদনে দেখা যায়, মার্চ মাসে ১২৭ কোটি ৩৩ লাখ মার্কিন ডলার বৈদেশিক মুদ্রা দেশে এসেছে। যা ফেব্রুয়ারিতে ছিল ১১৭ কোটি ৩১ লাখ ডলার। সে হিসাবে মার্চ মাসে রেমিট্যান্স প্রবাহ বেড়েছে ১০ কোটি ডলার। আর গত অর্থবছরের মার্চ মাসে ১২২ কোটি ৯৩ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স দেশে এসেছিল। যা চলতি অর্থবছরে এসে সামান্য বেড়েছে। যদিও গত অর্থবছরের দ্বিতীয়ার্ধ থেকে রেমিট্যান্স প্রবাহ কমতে শুরু করেছে। গত এক বছরে রেমিট্যান্স প্রবাহে নেতিবাচক ধারা চলছে। বিশেষজ্ঞদের মতে, মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে জনশক্তি রপ্তানি হ্রাস, দেশের রাজনৈতিক অস্থিরতা, বেসরকারি পর্যায়ে জনশক্তি রপ্তানিতে অনীহা, সর্বোপরি সরকারের কূটনৈতিক ব্যর্থতায় রেমিট্যান্স নেতিবাচক ধারা চলছে।
এ ছাড়া ডলারের বিপরীতে টাকা শক্তিশালী হওয়ায় প্রবাসীরা এখন আর আগের মতো অর্থ দেশে পাঠাচ্ছেন না। এতে রেমিট্যান্স প্রবাহ কমেছে বলে মনে করছেন সংশ্লিষ্টরা। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিবেদনে দেখা যায়, মার্চ মাসে রাষ্ট্রায়ত্ত বাণিজ্যিক ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে ৩৯ কোটি ৮০ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স এসেছে, যা এর আগের মাসে ছিল ৩৭ কোটি ডলার। বেসরকারি খাতের ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে এসেছে ৮৪ কোটি ডলার, যা ফেব্রুয়ারিতে ছিল ৭৭ কোটি ১৮ লাখ ডলার। এ মাসে বিশেষায়িত খাতের ব্যাংকগুলোর মাধ্যমে ১ কোটি ৫৫ লাখ ডলার এবং বিদেশী খাতের ব্যাংকের মাধ্যমে ১ কোটি ৯০ লাখ ডলারের রেমিট্যান্স এসেছে। পরিসংখ্যানে আরও দেখা যায়, চলতি অর্থবছরের ৯ মাসের মধ্যে মার্চ মাসে সবচেয়ে বেশি রেমিট্যান্স দেশে এসেছে। এর আগে জানুয়ারি মাসে ১২৬ কোটি ডলারের রেমিট্যান্স এসেছিল। অর্থবছরের প্রথম মাস জুলাইয়ের পর আগস্ট ও সেপ্টেম্বরে রেমিট্যান্স প্রবাহ অনেক কমে যায়। এরপর অক্টোবরের পর নভেম্বর ও ডিসেম্বরে রেমিট্যান্স প্রবাহ কমতে থাকে। ফেব্রুয়ারিতে মাত্র ১১৭ কোটি ডলারের রেমিট্যান্স আহরণ করেছিল দেশের ব্যাংকগুলো। সূত্রমতে, কয়েক বছর ধরে রেমিট্যান্সে উচ্চপ্রবাহ থাকলেও গত বছর নেতিবাচক ধারায় নেমে এসেছে। ২০১৩ সালে প্রবাসীরা ১ হাজার ৩৮৪ কোটি মার্কিন ডলারের সমপরিমাণ মূল্যের রেমিট্যান্স দেশে পাঠিয়েছেন। যা এর আগের বছরে ছিল ১ হাজার ৪১৮ কোটি ডলার। সে হিসাবে গতবছর রেমিট্যান্স কমেছে ৩৪ কোটি ডলার বা ২.৩৯%।