বরকল ছালামতিয়া প্রাক্তন শিক্ষার্থী পরিষদের ঈদ পুনর্মিলনী

0
3

বরকল ছালামতিয়া সুন্নিয়া সিনিয়র মাদরাসা প্রাক্তন শিক্ষার্থী পরিষদ (প্রাশিপ)’র আয়োজনে ঈদ পুনর্মিলনী ও বার্ষিক সাধারণ সভা গত ৯ জুন‘১৯ রবিবার বিকালে বরকল মাদরাসা অডিটোরিয়ামে প্রাশিপের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি মুহাম্মদ জসিম উদ্দীন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় স্বাগত বক্তব্য রাখেন প্রাশিপের সাংগঠনিক সম্পাদক সংগঠক জি.এম শাহাদত হোসাইন মানিক। মুহাম্মদ আবদুল মুবিনের সঞ্চালণায় সভায় বক্তব্য রাখেন প্রাশিপের সিনিয়র সহ-সভাপতি মোহাম্মদ আবুল মনসুর, সহ-সভাপতি এডভোকেট মুহাম্মদ মোরশেদুল আলম খান, মুহাম্মদ গিয়াস উদ্দিন ছিদ্দিকী, সাধারণ সম্পাদক মাওলানা ক্বারী মুহাম্মদ ফেরদৌসুল আলম খান আলকাদেরী, যুগ্ম-সম্পাদক মোহাম্মদ এমরানুল হক খান, মাওলানা হাফেজ মুহাম্মদ ছিবগতুল্লাহ চৌধুরী, মাওলানা মুহাম্মদ আবদুর রহমান আলকাদেরী, অর্থ সম্পাদক মুহাম্মদ মোজাম্মেল হক, মুহাম্মদ ইমরান হোসেন, মাওলানা মুহাম্মদ মাজহার হেলাল, অধ্যক্ষ মাওলানা কাজী মুহাম্মদ আলাউদ্দীন, মুহাম্মদ শহিদুল ইসলাম, মুহাম্মদ ফরিদুল আলম ভূইয়া, মাওলানা মুহাম্মদ আবদুল হক, মুহাম্মদ শাহাদাত হোসেন মুন্না, মাওলানা মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম চৌধুরী, এম নজরুল ইসলাম, কাজী মুহাম্মদ ওসমান গণী, মুহাম্মদ জালাল উদ্দীন, শাহজাদা মুহাম্মদ আরিফুজ্জমান খান, শাহজাদা মুহাম্মদ নিজাম উদ্দীন শাহ ওষখাইনী, মুহাম্মদ আবদুল আলিম, মোহাম্মদ রমজান আলী, হাফেজ মুহাম্মদ মঈন উদ্দিন খান, মুহাম্মদ ইলিয়াছ, মুহাম্মদ আলী আকবর, মুহাম্মদ ইমরান হোসাইন তুষার প্রমুখ।

সভায় বক্তারা বলেন, যুগে যুগে নৈতিক অবক্ষয় রোধে ধর্মীয় শিক্ষা অগ্রণী ভূমিকা পালন করেছে। তারই ধারাবাহিকতায় সাবেক এমপিএ আলহাজ্ব সোনা মিয়া চৌধুরী (রহঃ)‘র প্রতিষ্ঠিত বরকল ছালামতিয়া সুন্নিয়া সিনিয়র মাদরাসা সুনাগরিক সৃষ্টিতে ধারাবাহিক ভূমিকা রেখে যাচ্ছে। বক্তারা আরো বলেন, পবিত্র ঈদুল ফিতর মুসলিম উম্মাকে ভ্রাতৃত্বের বন্ধনে আবদ্ধ করে একটি সুন্দর ইনসাফ ভিত্তিক সমাজ প্রতিষ্ঠার শিক্ষা দেয়। প্রাক্তন শিক্ষার্থী পরিষদের এই ঈদ পুনর্মিলনী নিজেদের মধ্যে ভ্রাতৃত্বের বন্ধন দৃঢ় করতে ভূমিকা রাখবে নিঃসন্দেহে। পবিত্র ঈদুল ফিতর ভ্রাতৃত্ব সৃষ্টির সেতুবন্ধন। সভায় প্রাশিপ’র বর্তমান কমিটির মেয়াদ শেষ হওয়ায় নতুন কমিটি গঠনকল্পে নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়। প্রাশিপ’র প্রধান উপদেষ্টা ও পৃষ্টপোষক ও চট্টগ্রাম রেঞ্জের এডিশনাল ডিআইজি মোহাম্মদ ফয়েজ কে প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও হাফেজ নিজামুদ্দীন মুহাম্মদ আবু বক্কর, মোহাম্মদ আকতার ফারুক কে নির্বাচন কমিশনার করে তিন সদস্য বিশিষ্ট নির্বাচন কমিশন গঠন করা হয়। আগামী ঈদুল আজহার পরের দিন মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটির নবায়নের সিদ্ধান্ত সহ গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।