বাজার মাজার, দুর্গা দরগা নই, মুসলামানের ভরসা আল্লাহ

0
40

চকরিয়া খুটাখালী পুর্বপাড়া ইসলামী সীরত কমিটির তাফসীরুল কোরআন মাহফিলে-কামরুল ইসলাম সাঈদ আনচারী 

সেলিম উদ্দীন,কক্সবাজার:

আন্তজার্তিক খ্যাতি সম্পন্ন মুফাচ্ছিরে কোরআন হযরত মাওলানা কামরুল ইসলাম সাঈদ আনচারী বলেছেন, মহান আল্লাহপাক মানুষকে একমাত্র তাঁর ইবাদতেaর জন্যই সৃষ্টি করেছেন। শুধু নামাজ রোজা, হজ্ব ও যাকাত আদায় করার নাম ইবাদত নয়: বরং আল্লাহ ও তার রাসূলের হুকুম অনুসারে যখন যা করা হবে তাই ইবাদত রুপে গণ্য হবে। ব্যবসা বাণিজ্য হচ্ছে হালাল উপার্জনের একটি অনন্য পন্থা। ব্যবসাকে হালাল ঘোষণা করা হয়েছে। তিনি আরোও বলেন, যারা আল্লাহর বিধান অনুসারে ব্যবসা করে তারা আল্লাহর নিকট অত্যন্ত মর্যাদাবান। রাসুলুল্লাহ (সাঃ) আমাদের জন্য সর্বশ্রেষ্ঠ আদর্শ। আল্লাহ তায়ালা পবিত্র কুরআনে জানিয়ে দিয়েছেন, তোমাদের জন্য আল্লাহর রাসুলের জীবনেই রয়েছে সর্বোত্তম আদর্শ। আজকের এই অশান্ত পৃথিবীতে শান্তি ও মুক্তি নিশ্চিত করতে বিশ্বনবীর আদর্শ অনুসরণের বিকল্প নেই। ব্যক্তিগত জীবন থেকে শুরু করে জীবনের প্রতি ধাপে তাঁর অনুকরণ, ঈমানী দায়িত্ব। তাঁর মর্যাদা রক্ষা ও বুলন্দ করা মুসলমানদের ঈমানের অপরিহার্য দাবী। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন মানুষকে অসংখ্য নিয়ামত দান করেছেন জানিয়ে তিনি আরো বলেন,সুন্দর শরীর-ঘরবাড়ি-ছেলে-মেয়ে ধন-দৌলত এ সবই সম্পদ। কিন্তু তার মধ্যে সবচাইতে বড় সম্পদ হলো ঈমানের সম্পদ। এই ঈমানী সম্পদ রক্ষার জন্য জীবনের সর্বস্তরে রসুল সঃ এর আদর্শ মেনে চলতে হবে। তিনি বলেন, রসুল সঃ এর আদর্শ অনুসরনের মাধ্যমে বাংলাদেশকে সন্ত্রাসমুক্ত, দুর্নীতিমুক্ত দেশ হিসেবে উন্নয়নের উচ্চ শিখরে নিয়ে যাওয়া সম্ভব। মনে রাখবেন বাজার মাজার, দুর্গা দরগা নই, মুসলমানের ভরসা একমাত্র আল্লাহ। গত রবিবার (১৬ ফেব্রুয়ারী) রাতে চকরিয়া উপজেলার খুটাখালী পুর্বপাড়া ইসলামী সীরত কমিটি আয়োজিত ২য় বারের মত তাফসীরুল কোরআন মাহফিলে প্রধান মুফাচ্ছিরের আলোচনায় তিনি এসব কথা বলেন। খুটাখালী ইউপি চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুর রহমানের সভাপতিত্বে মাহফিলে প্রধান অতিথি ছিলেন খুটাখালী আ’লীগ সভাপতি আলহাজ্ব জয়নাল আবেদীন। সংগঠনের অন্যতম উদ্দোক্তা শীষ মুহাম্মদ রাশেল ও নুরন্নবীর যৌথ সঞ্চালনায় বিশেষ মুফাচ্ছিরের আলোচনায় তমিজিয়া ইসলামিয়া ফাজিল ডিগ্রি মাদরাসার আরবী প্রভাষক মাওলানা আবুল ফজল বলেছেন, সারা বিশ্বে মুসলমানদের ঈমানী সম্পদ লুটে নেওয়ার জন্য আজ ইহুদীরা দলবদ্ধভাবে মুসলমানদের উপর আক্রমণ করছে। এই আক্রমণ থেকে বাঁচার জন্য এবং ঈমানের সম্পদ রক্ষা করার জন্য মুসলমানদেরকে নিয়মিত কয়েকটি কাজ করতে হবে। তার মধ্যে একটি হলো নামাজ। তিনি বলেন, কোনো মতে নামাজ ছাড়া যাবে না। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ আদায় করতে হবে। তিনি আরো বলেন, শুধু মসজিদে বসে বসে নামাজ আদায় করলেও হবে না। আজান হলে যেকোনো কাজ ছেড়ে নামাজে হাজির হতে হবে। এরপরে তিনি বলেন, মানুষকে কষ্ট দেয়া যাবে না, টাকার বাহাদুরী দেখিয়ে ক্ষমতার বাহাদুরি দেখিয়ে কোন মানুষকে কোন ধরনের কষ্ট দেয় আল্লাহ রব্বুল আলামীন সহ্য করেন না। এটা এক প্রকার গর্ব এবং অহংকার। আল্লাহ অহংকার সহ্য করেন না। তিনি আরো বলেন, হারাম থেকে প্রত্যেক মুসলমানকে বেঁচে থাকতে হবে। কোনমতেই হারাম রুজি রোজগার করা যাবেনা। হারামের মধ্যে কোন ধরনের বরকত নাই। আর হালাল রুজির মধ্যে বরকত রয়েছে। মাহফিলের বিশেষ বক্তা কক্সবাজার ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটির অধ্যাপক আবদুর রহমান বশরী বলেছেন, প্রত্যেক মুসলমানকে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামকে জীবনের সর্বস্তরে আদর্শ হিসেব মেনে চলতে হবে। চলতে-ফিরতে উঠতে বসতে কাজে-কর্মে এমনকি জীবনের সর্বস্তরে রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের আদর্শ মেনে চলতে হবে। তখনই একজন মুসলমান তার ঈমানী শক্তিকে ইহুদী-নাছারা ও শয়তানি আক্রমণ থেকে রক্ষা করতে সক্ষম হবে। মাহফিলে তমিজিয়া ইসলামিয়া ফাজিল ডিগ্রি মাদরাসার শিক্ষক হাফেজ মাওলানা আবদুর রহিম বলেন, সুদ এমন এক মারাত্মক ব্যাধি যা দুনিয়া আখেরাত দুটাই নষ্ট করে। মহান আল্লাহ রাব্বুল আলামিন এই সুদ হারাম করেছেন। আজকে সম্পদশালী হওয়ার জন্য সমাজে সুদী লেনদেন ব্যবসা-বাণিজ্যের প্রতিযোগিতা শুরু হয়েছে। যার পরিণতি খুবই মারাত্মক বলে তিনি মুসলিম সমাজকে সতর্ক করে বলেন সুদভিত্তিক অর্থব্যবস্থা পরিবার রাষ্ট্র ও সমাজের কোথাও শান্তি আনতে পারেনা। দিনব্যাপী মাহফিলে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন চকরিয়া মহিলা কলেজ অধ্যক্ষ এসএম মনজুর। এসময় অন্যন্যদের মধ্যে ইউনিয়ন আ’লীগ সাধারন সম্পাদক বাহাদুর হক, মাহফিল কমিটির উপদেষ্টা এম বেলাল আজাদ, প্যানেল চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল, মেম্বার আনোয়ার হোসেন, অলি আহমদ, এসএম তারেক, নুরুল হক, ছলিম উল্লাহ, ওয়াশিম আকরামসহ স্থানীয় গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। তাফসিরুল কোরআন মাহফিল সুষ্ট সুন্দরভাবে সম্পন্ন হওয়ায় মাহফিল কমিটির সভাপতি জসিম উদ্দীন, সদস্য যথাক্রমে ইমরান খাঁন,আনোয়ার হোসেন সাদেক, মিরাজুল হক সাইমুম,হারুন রশিদ,জয়নাল উদ্দীন ও রায়হান উদ্দীন প্রমুখ মহান আল্লাহর দরবারে শোকরিয়া আদায় করে সার্বিক সহযোগিতার জন্য সকলের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।