বিদআত ইবাদতের ছদ্ধাবরণে মুসলমানদের ঈমানী চেতনার ঘাতক মাওলানা নূরী

0
4

বায়তুশ শরফ মজলিসুল ওলামা বাংলাদেশের মহাসচিব প্রখ্যাত মুফাসসিরে কোরআন মাওলানা মামুনুর রশীদ নুরী বলেছেন, বিদআত ইবাদত ও ছাওয়াবের ছন্ধাবরণে মুসলিম জাতির জন্য ঈমানী চেতনার ঘাতক। সুন্নাতে নববীর পরিপন্থি নতুন উদভাবিত ও অতিরঞ্জিত কিছু কাজ। সেটা কোরআন-হাদীসের আলোকে নিন্দিত আমল। ইসলামের মূল আকিদা বিশ্বাসের সাথে চরম সাংঘর্ষিক। তিনি বলেন মুসলিম সমাজের রন্দ্রে রন্দ্রে ঢুকে পড়া ইসলাম বিকৃতির এসব জঘন্য ব্যাধি থেকে মুসলমানদের রক্ষা করার জন্য সুন্নাতে রাসুলের (স:) প্রতিষ্ঠার অনিবার্য পদক্ষেপ আজ সময়ের দাবী। মাওলানা মামুনুর রশীদ নুরী গতকাল ফেনী সদর উপজিলার নতুন সমিতির বাজার কেèদ্রীয় জামে মসজিদের উদ্যোগে মসজিদ সংলগ্ন ঈদগাহ ময়দানে আয়োজিত বিশাল তাফসীরুল কোরআন মাহফিলে প্রধান মুফাসিসরের তাফসীর কালে এ কথা বলেন। প্রবীন আলেমেদ্বীন শাহ মাওলানা ইয়াহয়া খানের সভাপতিত্বে ও হাকীম মাওলানা আবদুল মোমেন ভূইঁয়ার পরিচালনায় অনুষ্ঠিত তাফসীর মাহফিলে মাওলানা নূরী আরো বলেন,যেখানে আল্লাহ তালা ইসলামকে পরিপূর্ণ বিধান হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে সেখানে কোন ধরনের সংযোজন বিয়োজন একটি মারাত্মক দৃষ্টতা। কারণ মহান আল্লাহ হচ্ছেন শাশ্বত ইসলামের মূল বিধানদাতা যে বিধানকে আল্লাহ তালা ওহীর দ্বারা রাসুলের (স:) মাধ্যমে সমাজ ও রাষ্ট্রে কার্যকর করেছেন এবং এই বিধান হচ্ছে আমোঘ অপরিবর্তনীয়। তিনি আরো বলেন, ইসলামী শরীয়াহ ক্রম বর্ধমান বিকাশের শেষ প্রান্তে এসে রাসুলে (স:) এর উপর এই বিধান কে পরিপূর্ণরূপে পরিগ্রহ করেছে। তাই বিদআতকে শক্ত হাতে পতিরোধ করাই হচ্ছে ইসলামী জীবন ধারাকে নিখুঁত ও নির্ভেজালরূপে প্রতিষঠা করার একটি ঈমানী উদ্যোগ। মাহফিলে আরো বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ মাওলানা জাকারিয়া, মাওলানা আবু হানিফ, মাওলানা রেজাউল করীম। অধ্যক্ষ মাওলানা একরামুল হক নিজামী ও অধ্যক্ষ মাওলানা শাহ মোহাম্মদ আবদুল হান্নান প্রমুখ।