মা-বাবার পাশেই সমাহিত মইন উদ্দীন খান বাদল

0
91

বর্ষীয়ান রাজনীতিক চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য মঈন উদ্দিন খান বাদলের দ্বিতীয় জানাজা চট্টগ্রামের জমিয়তুল ফালাহ মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (৯ নভেম্বর) বাদ মাগরিব তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় ইমামতি করেন আওলাদে রাসুল (সাঃ) সৈয়দ মুহাম্মদ তাহের শাহ (মা.জি.আ) এর বড় শাহাজাদা হযরত মাওলানা সৈয়দ মুহাম্মদ কাশেম শাহ (মা.জি.আ)। বর্ষীয়ান রাজনীতিক চট্টগ্রাম-৮ আসনের সংসদ সদস্য মঈন উদ্দিন খান বাদলের দ্বিতীয় জানাজা চট্টগ্রামের জমিয়তুল ফালাহ মসজিদে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শনিবার (৯ নভেম্বর) বাদ মাগরিব তার জানাজা অনুষ্ঠিত হয়। জানাজায় ইমামতি করেন আওলাদে রাসুল (সাঃ) সৈয়দ মুহাম্মদ তাহের শাহ (মা.জি.আ) এর বড় শাহাজাদা হযরত মাওলানা সৈয়দ মুহাম্মদ কাশেম শাহ (মা.জি.আ)।জানাজা শেষে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের নেতা-কর্মী, নানা শ্রেণি-পেশার মানুষ বাদলের মরদেহে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। বাদলকে শেষবারের মতো দেখতে জানাজায় আসা নেতা-কর্মীরা হুমড়ি খেয়ে পড়েন। পরে পুলিশের পক্ষ থেকে মঈন উদ্দিন খান বাদলকে গার্ড অব অনার দেওয়া হয়।

জানাজায় আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য সাবেক মন্ত্রী ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ হোসেন, ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ, জাতীয় সংসদের হুইপ সামশুল হক চৌধুরী, সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী, আবু রেজা মোহাম্মদ নিজামুদ্দিন নদভী, মাহফুজুর রহমান মিতা, জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ সালাম, সাবেক সিডিএ চেয়ারম্যান আবদুচ ছালাম, বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান, সিএমপি কমিশনার মো. মাহাবুবর রহমান, জেলা প্রশাসক মো. ইলিয়াস হোসেন প্রমুখ অংশ নেন।

নগরে জানাজা শেষে বাদলের মরদেহ নিজ এলাকা বোয়ালখালী নিয়ে যাওয়া হয়। রাত ৮টায় বোয়ালখালী সিরাজুল ইসলাম ডিগ্রি কলেজ ময়দানে তৃতীয় জানাজা এবং রাত ৯টায় নিজ গ্রামে চতুর্থ জানাজা শেষে বাবা-মায়ের পাশে দাফন করা হবে তাকে।

গত বৃহস্পতিবার (৭ নভেম্বর) বাংলাদেশ সময় সকাল ৭টা ৪৫ মিনিটে ভারতের বেঙ্গালুরুর নারায়ণ হৃদরোগ রিসার্চ ইনস্টিটিউট অ্যান্ড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান চট্টগ্রাম-৮ আসনের তিনবারের সংসদ সদস্য মঈন উদ্দীন খান বাদল।

পরে শুক্রবার (৮ নভেম্বর) রাত ৮টায় তার মরদেহ ঢাকায় এসে পৌঁছায়।