মহানবী (দ.) বিশ্ব মানবতার জন্য আল্লাহর সর্বশ্রেষ্ঠ করুণা ও অনুগ্রহ

0
8

পবিত্র ঈদে মিলাদুন্নবী (দঃ) উপলক্ষ্যে আহলে সুন্নাত ওয়াল জমা’আত বাংলাদেশ ভুজপুর থানার উদ্যোগে আজ ৪ নভেম্বর সোমবার খলিফায়ে গাউছুল আজম মাইজভান্ডারী হযরত আব্দুস সালাম ভুজপুরী (রহঃ) মাজার থেকে বেতাগীয়া দরবার শরীফের সাজ্জাদানশীন পীরজাদা মাওলানা মুহাম্মদ গোলামুর রহমান আশরফ শাহ্ (মু.জি.আ) এর ছদারতে বিশাল জশনে জুলুস অনুষ্ঠিত হয়। জুলুসটি ভুজপুর, নারায়ণহাট ইউনিয়নের গুরুত্বপূর্ণ সড়কগুলো প্রদক্ষিণ করে মাজার চত্বরে এসে আলোচনা সভা, মিলাদ-কিয়াম ও মুনাজাতের মাধ্যমে সমাপ্ত হয়। ভুজপুর সালামিয়া ইসলামিয়া মাদরাসার প্রতিষ্ঠাতা আলহাজ্ব মুহাম্মদ মতিউর রহমান শিকদারের সভাপতিত্বে প্রস্তুতি কমিটির আহবায়ক মাওলানা মুহাম্মদ সৈয়দুল হক সৈয়দ ও মুহাম্মদ মিনহাজ উদ্দিন সিদ্দিকীর যৌথ সঞ্চালনায় আলোচনা সভায় উদ্বোধনী বক্তব্য রাখেন হযরত আবদুল মালেক শাহ ( রহঃ) গাউছিয়া মাদরাসা পরিচালনা পরিষদ এর সভাপতি আলহাজ্ব কাজী মুহাম্মদ ফোরকান রেজা। প্রধান বক্তার বক্তব্য রাখেন সিলেট নূরে হাবীবে এলাহী কম্প্লেক্সের প্রতিষ্ঠিতা মাওলানা মুহাম্মদ এনাম রেজা আলকাদেরী। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন হিজরী নববর্ষ উদযাপন পরিষদের যুগ্ম মহাসচিব মুহাম্মদ শফিউল আলম, শাহজাদা মাওলানা মুহাম্মদ আবু তৈয়ব মুহাম্মদ মুজিবুল হক, সমাজসেক মুহাম্মদ নুরুল আলম গুরু মিয়া, মুহাম্মদ বাহাদুর আলম কোম্পানি, ব্যবসায়ী মুহাম্মদ নজরুল, মাওলানা মুহাম্মদ জালাল উদ্দীন সুন্দপুরী, মাওলানা মুহাম্মদ নুরুল আলম, মাওলানা মুহাম্মদ শামশুল আলম, মাওলানা মুহাম্মদ রফিকুল ইসলাম। বক্তারা বলেন, প্রিয়নবী হযরত মুহাম্মদ (দ.) বিশ্ব মানবতার জন্য আল্লাহর সর্বশ্রেষ্ঠ করুণা ও অনুগ্রহ। মহানবীর আগমন ছিল সকল সৃষ্টির জন্য রহমত, বরকত ও মহা আনন্দের। তিনি সামাজিক, রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও ধর্মীয় তথা সার্বিক দিক থেকে অধঃপতনের চরম সীমায় নিমজ্জিত সমাজকে খোদায়ী নির্দেশনার আলোকে সম্পূর্ণরূপে বদলে দিয়েছিলেন। গোটা মানব সমাজকে শান্তি, সম্প্রীতি, সৌহার্দ্য, ভ্রাতৃত্ব ও মানবতার মহান আদর্শে উজ্জীবিত করেন। জাতি-ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সকলের যথাযথ অধিকার নিশ্চিত করে গেছেন। এতে আরো বক্তব্য রাখেন হাফেজ মুহাম্মদ শাহাদাত হোসাইন, হাফেজ মুহাম্মদ শহিদুল্লাহ, মুহাম্মদ নঈম উদ্দীন, মাওলানা শাহ্আলম কাদেরী, মুহাম্মদ এরশাদ শিকদার, মাওলানা মুহাম্মদ নুরুন্নবী রুবেল, মুহাম্মদ আরমান, মুহাম্মদ রাইয়ান, মুহাম্মদ মহিনুল করিম মাসুদ, মুহাম্মদ মিনহাজ রেজা, মুহাম্মদ ইয়াছিন, মুহাম্মদ শাহেন শাহ, মুহাম্মদ আজিজ ফারাবি, মুহাম্মদ আরিফ, মুহাম্মদ বারেক, মুহাম্মদ ইসমাইল, মুহাম্মদ আমিরুল হাছান, হাফেজ মুহাম্মদ ইয়াকুব, মুহাম্মদ ইয়াছিন, মুহাম্মদ শাহাদাত, মুহাম্মদ আরমান প্রমুখ।