‘মাদক ব্যবসা ছেড়ে দেন, অন্য ব্যবসা আছে সেগুলো করেন’

0
9

নিজস্ব প্রতিবেদক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, ‘আপনারা যদি আপনাদের ভাই, বোন, ছেলে, মেয়ে কোথায় যায়, কী করে খবর রাখেন তবে জঙ্গিবাদ দূর করা সম্ভব।

তিনি মাদক ব্যবসায়ীদের প্রতি হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করে বলেন, ‘মাদক ব্যবসা ছেড়ে দেন, অন্য ব্যবসা আছে সেগুলো করেন। কোনো ধর্মেই মাদক অ্যালাউ করে না। মাদক ব্যবসায়ীদের বলছি-কঠোর ব্যবস্থা নেব। বিস্তারিত বলতে চাই না। আপনারা দেখেছেন মাদক ব্যবসায়ীদের পরিণতি কী হয়েছে।’

বৃহস্পতিবার (১৪ মার্চ) এবিএম ফজলুল কবির চৌধুরী অডিটোরিয়ামে মাদক ও জঙ্গিবাদ বিরোধী সমাবেশ ও মতবিনিময় সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনায় সারা বাংলায় কাজ করছি। চাঁদে সাঈদীকে দেখা যায় বলে তাণ্ডব দেখেছি। কয়েকশ’ মানুষকে পুড়িয়ে মারা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে তা দমন করেছি। তারপর আমরা জঙ্গিবাদের উত্থান দেখলাম। বান্দরবান, পঞ্চগড়সহ কয়েকটি হত্যা, হলি আর্টিজান, শোলাকিয়ার হামলার ঘটনা দেখেছি। আমরা জঙ্গিবাদ কন্ট্রোল করেছি, দূর করেছি বলবো না।’

জঙ্গিদের পরিণতির কথা উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, ‘জঙ্গিদের লাশ গ্রহণ করেনি পরিবার। আনজুমান মফিদুল ইসলামে দিয়েছি।’

অনুষ্ঠানের প্রধান বক্তা রাউজানের সংসদ সদস্য এবিএম ফজলে করিম চৌধুরী বলেন, ‘আমরা চাই মানুষ শান্তিতে থাকুক। রাউজান শান্তির জনপদ। ‘

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শামীম রেজার সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য দেন পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের উপ-মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) খন্দকার গোলাম ফারুক, চট্টগ্রামের পুলিশ সুপার নুরেআলম মিনা, অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট মাশহুদুল কবির ও রাউজান উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এহছানুল হায়দার চৌধুরী বাবুল।

এর আগে সকালে রাউজান কলেজের পাশে মাস্টারদা সূর্য সেনের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন এবং মাস্টারদা সূর্য সেন মেমোরিয়াল ও পাঠাগার পরিদর্শন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। সেখানে মন্ত্রীকে ফুল দিয়ে বরণ করে নেন মাস্টারদা সূর্য সেন মেমোরিয়াল ও পাঠাগারের সভাপতি শ্যামল কুমার পালিত।

পরে রাউজান থানা ভবনের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল।