মালয়েশিয়া যাওয়ার প্রস্তুতি কালে ২৩ রোহিঙ্গা আটক

0
14
উখিয়া অফিস::
কক্সবাজারের উখিয়ার উপকূলীয় ইনানী পুলিশ ফাঁড়ির সদস্যরা অভিযান চালিয়ে মালয়েশিয়া যাওয়ার প্রস্তুতি কালে নারী পুরুষ ও শিশুসহ ২৩ রোহিঙ্গাকে আটক করতে সক্ষম হয়েছে।
সোমবার ভোর রাতে কক্সবাজার -টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের ইনানী বড় খাল এলাকা থেকে তাদের অাটক করা হয়।গতকাল সোমবার দুপুরে উখিয়া থানায় সোর্পদ্দ করা হয়।সংশ্লিষ্ট সুত্রে জানা গেছে,উখিয়ার রোহিঙ্গা ক্যাম্প ভিক্তিক কিছু দালাল সৃষ্টি হয়েছে। তাদের নেতৃত্ব ক্যাম্প অভ্যন্তরে নানান প্রলোভন দিয়ে নারী, পুরুষ ও শিশুদের সংগ্রহ করছে। কারন বেশির ভাগ রোহিঙ্গাদের হাতে কোন টাকা পয়সা থাকে না।  অভাব অনটন কাটাতে অবৈধ ভাবে মালয়েশিয়ায় যেতে ইচ্ছুক। অল্প টাকায় বিদেশ যেতে পারেন। ক্যাম্পে বসবাসকারী কিছু রোহিঙ্গা জানান,এসব দালালদের সাথে কিছু সংখ্যক মাঝি জড়িত থাকতে পারে। তাদের অাশ্রয় পশ্রয়ে এসব দালাল ক্যাম্প এলাকায় ঘুরে বেড়ান। অাটককৃতরা হলেন,টেকনাফ উপজেলার শাপলাপুর রোহিঙ্গা ক্যাম্পের অাবদুস সালামের মেয়ে হাজেরা খাতুন (১৮),কালামিয়ার মেয়ে নেছারুন (১৯),অাবদুস সালামের মেয়ে মদিনা (১৪),উখিয়ার থাইনখালী রোহিঙ্গা ক্যাম্পের সলিম উল্লাহর মেয়ে  হাসিনা বেগম (১৫)ও অাবদুল অামিনের মেয়ে রফিকা বেগম (১৪),হাকিম পাড়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের মোহাম্মদ রফিকের মেয়ে রোকেয়া বেগম (১৫),মোহাম্মদ রফিকের মেয়ে সেতারা বেগম (১৯),উখিয়ার কুতুপালং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের কলিম উল্লাহ মেয়ে  হুমায়ারা বেগম (১৬), উখিয়ার কুতুপালং লম্বাশিয়া রোহিঙ্গা ক্যাম্পের রহমত উল্লাহ মেয়ে সামসুর নাহার (১৬),জামতলী ক্যাম্পের রশিদ অাহমদের ছেলে হাফিজুর রহমান (২০),উখিয়ার বালুখালি রোহিঙ্গা ক্যাম্পের  রহমত উল্লাহ ছেলে সালামত উল্লাহ (১৬),মৃত দ্বীন মোহাম্মদের ছেলে রেজুয়ান অাহমদ (৯),মৃত দ্বীন মোহাম্মদের স্ত্রী জমিলা খাতুন (২৯),কবির অাহমদের মেয়ে রাসমিন  অাকতার (১৫),সেন্টু অালমের ছেলে মোহাম্মদ রশিদ (১০),সৈয়দ অামিনের মেয়ে ইয়াছমিন অাকতার (১৬),সৈয়দ অামিনের মেয়ে তাহমিনা অাকতার (১৮),কালা মিয়ার মেয়ে অাকলিমা (৬),কালা মিয়ার ছেলে অায়াস উদ্দিন (৫),কালা মিয়ার স্ত্রী ফাতেমা (২৫),রশিদ অাহমদের  মেয়ে কাউসার বিবি (১৭), অাজিজুল হকের মেয়ে উম্মে হাবিবাা (১৫)ও এনায়েত মেয়ে সাবেকুর নাহার (১৫)।ইনানী পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ উপপরিদর্শক সিদ্ধাদ  বলেন স্হানীয়দের সহযোগিতায় ইনানী বড় খাল এলাকা থেকে মালয়েশিয়া যাওয়ার প্রস্তুতি কালে ২৩রোহিঙ্গা কে অাটক করি। উখিয়া থানার ওসি অাবুল খায়ের সত্যতা স্বীকার করে বলেন অাটককৃত রোহিঙ্গাদের নিজ নিজ ক্যাম্পে ফেরত পাঠানো হবে।