মুক্তিযুদ্ধের বিজয়মেলার মুক্তিযোদ্ধা স্কোয়াড গঠন

0
11

মুক্তিযোদ্ধারা জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান। দেশমাতৃকার শ্রেষ্ঠ সম্পদ। দেশ ও জাতির যে কোনো সংকটে, বিপর্যয়ে মুক্তিযোদ্ধারা অতন্দ্র প্রহরীর ভূমিকা পালন করবে। মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের সাথে বাংলাদেশ মুক্তিযোদ্ধা সংসদ চট্টগ্রাম মহানগর ও জেলা কমান্ড ও থানা, উপজেলা কমান্ডারদের আসন্ন বিজয় মেলা উদ্যাপন বিষয়ে আজ দুপুরের এক মত বিনিময় সভায় সভাপতির বক্তব্যে মুক্তিযুদ্ধের বিজয় মেলা পরিষদের চেয়ারম্যান, মহানগর আওয়ামী লীগ সভাপতি সাবেক মেয়র এ.বি.এম. মহিউদ্দিন চৌধুরী এ কথা বলেন।
তিনি মুক্তিযুদ্ধের আদর্শ পরবর্তী প্রজন্মের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য একটি স্কুল করার প্রস্তাব করেন। এছাড়া ১০১ সদস্য বিশিষ্ট মুক্তিযোদ্ধা স্কোয়াড কমিটি গঠন করার ব্যাপারে অভিমত ব্যক্ত করেন। সভায় আগামী ২৯ নভেম্বর বেলা ১টায় মুক্তিযোদ্ধাদের সাথে উল্লিখিত বিষয়ে পুনরায় মতবিনিময় ও ১১ ডিসেম্বর বিজয় মেলা মঞ্চে স্মৃতিচারণ অনুষ্ঠান পরিচালনার দায়িত্ব মুক্তিযোদ্ধা স্কোয়াডকে দেওয়া হয়। বিজয় মেলার এই বিশাল ও বর্ণাঢ্য আয়োজনে সকল মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিকামী জনগণকে অংশগ্রহণ করার জন্য উদাত্ত আহ্বান জানানো হয়।
এ.বি.এম. মহিউদ্দিন চৌধুরী বলেন, এবারের বিজয় মেলা ২৬ বছরে পদার্পণ করেছে। দেশ ও জাতির এই বিশেষ পুরুত্বপূর্ণ সময়ে এ বছরের বিজয় মেলা বিশেষ অর্থ ও তাৎপর্য বহন করছে। বর্তমানে গণতান্ত্রিক সরকার ক্ষমতায়। যুদ্ধাপরাধীদের বিচার চলছে। বিচারের সুষ্ঠু প্রক্রিয়া তাদের শাস্তি নিশ্চিত করা এবং গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রাখার জন্য মুক্তিযোদ্ধাদের এখন একাত্তরের চেতনা বুকে ধারণ করে কাজ করতে হবে। ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত বাংলাদেশ সৃষ্টি করার জন্য ভূমিকা রাখতে হবে। বাংলাদেশ নিশ্চয়ই অচিরেই একটি মধ্যম আয়ের দেশে রূপান্তরিত হবে।
মতবিনিময় সভায় উপস্থিত ছিলেন কমান্ডার জাহাঙ্গীর চৌধুরী (সিএনসি), কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান এস.এম. মর্তুজা, বিজয় মেলা পরিষদের মহাসচিব আহম্মদুর রহমান সিদ্দিকী ও মোহাম্মদ ইউনুছ, ক্যাপ্টেন এম.এনামুল হক চৌধুরী, অর্থ সচিব পান্টু লাল সাহা, জেলা কমান্ডার মোহাম্মদ শাহাবুদ্দীন, মহানগর কমান্ডার মোজাফফর আহম্মদ, মহানগর ডেপুটি কমান্ডার শহীদুল হক চৌধুরী সৈয়দ ও খলিল উল্লাহ সরর্দ্দার, জেলা ডেপুটি কমান্ডার মহাবুবুল আলম চৌধুরী, অমল মিত্র, আব্দুল কাশেম চিশ্তী, সরওয়ার কামাল, মহানগর থানা কমান্ডের আওতাধীন ১৩ টি থানার আহ্বায়ক ও সদস্য সচিব এবং জেলা কমিটির আওতাধীন ১৪ টি উপজেলা কমান্ডের কমান্ডার ও ডেপুটি কমান্ডারবৃন্দ।