মুক্তিযোদ্ধা সানুর নামে সড়কের নামকরণ করুন

0
71

বীর মুক্তিযোদ্ধা সানোয়ার আলী সানুর স্বরণ সভায় ডাঃ শাহাদাত হোসেন

চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সভাপতি ডা. শাহাদাত হোসেন বলেছেন, মুক্তিযোদ্ধা
সৈয়দ সানোয়ার আলী সানু ছিলেন একজন সদালাপী ও স্পষ্টবাদী ব্যক্তিতের
অধিকারী। বিএনপির রাজনীতিতে তিনি ছিলেন সকল ধরনের পরিক্ষায় উত্তীর্ণ
ত্যাগী নেতা। বাংলাদেশের স্বাধীনতা আন্দোলনে তার গৌরব উজ্জ্বল ভূমিকা
চট্টগ্রামবাসী আজীবন মনে রাখবে। চট্টগ্রামের ক্রীড়াঙ্গনের উন্নয়নে তার
স্বতঃস্ফূর্ত উপস্থিতি ছিল লক্ষণীয়। রাজনীতির পাশাপাশি শতদল ক্লাবের মত
একটি ক্রীড়া ও সামাজিক সংগঠনের কর্ণধার ছিলেন তিনি। মৃত্যুর পূর্ব
পর্যন্ত দলীয় আদর্শের প্রতি অবিচল থেকে বিএনপিকে শক্তিশালী করতে
নিরলসভাবে কাজ করে গেছেন। বর্তমানে দেশে গণতন্ত্রের যে ক্রান্তিকাল চলছে
এ সময় সৈয়দ সানোয়ার আলী সানুর মতো নেতার খুবই প্রয়োজন ছিল। তিনি স্মরণ
সভা থেকে সানোয়ার আলী সানুর মুক্তিযুদ্ধের অবদানকে মূল্যায়ন করে তার নামে
চট্টগ্রামের একটি সড়কের নামকরণের দাবী জানান। তিনি সানোয়ার আলী সানুর
আত্মার মাগফেরাত কামনা করেন। তিনি আজ ৯ নভেম্বর শনিবার বিকেলে চট্টগ্রাম
মেট্রোপলিটন সাংবাদিক ইউনিয়ন মিলনায়তনে জামাল খান ওয়ার্ড বিএনপির উদ্যোগে
মুক্তিযোদ্ধা সৈয়দ সানোয়ার আলী সানুর ৪র্থ মৃত্যুবার্ষিকীর স্মরণ সভায়
প্রধান অতিথির বক্তব্যে এ কথা বলেন।
এতে প্রধান বক্তার বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক
আবুল হাশেম বক্কর বলেন, দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আজ স্বৈরাচারের
কারাগারে বন্দি। বাংলাদেশ আজ গণতন্ত্রহীন। এই গণতন্ত্রকে রক্ষার জন্য
সানোয়ার আলী সানুর আদর্শে সবাইকে উজ্জ্বীবিত হতে হবে। তিনি বিএনপির জন্য
যে ত্যাগ স্বীকার করে গেছেন তা আমাদের কাছে অনুপ্রেরণা হয়ে থাকবে। তিনি
শুধু রাজনৈতিক নেতা ছিলেন না সামাজিক ও ধর্মীয় কর্মকান্ডে তার ভূমিকা ছিল
অপরিসীম। তার জীবনী থেকে শিক্ষা নিয়ে সামনের দিকে এগিয়ে যেতে হবে। তার
আদর্শকে ধারণ করে বেগম খালেদা জিয়া ও গণতন্ত্র মুক্তির আন্দোলনে সবাইকে
ঐক্যবদ্ধ হয়ে এগিয়ে আসতে হবে।
বিশেষ অতিথির বক্তব্যে চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাবেক সাধারণ সম্পাদক
মুক্তিযোদ্ধা একরামুল করিম বলেন, মুক্তিযোদ্ধারা আমাদের গর্বের ধন। তাদের
আত্মত্যাগের বিনিময়ে আজ আমরা স্বাধীন দেশের নাগরিক। তাদের অবদান যুগ যুগ
ধরে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে। মুক্তিযুদ্ধে সানোয়ার আলী সানুর বীরত্বপূর্ণ
ভূমিকা চট্টগ্রামবাসী চিরদিন মনে রাখবে। সানোয়ার আলী সানু তার কর্মের
গুণে মানুষের মাঝে আজীবন বেঁচে থাকবেন।
জামাল খান ওয়ার্ড বিএনপির আহবায়ক ও কোতোয়ালি থানা বিএনপির সভাপতি মঞ্জুর
রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ও বিএনপি নেতা আবু মোঃ মহসিন চৌধুরীর পরিচালনায়
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির উপদেষ্টা
সাংবাদিক জাহিদুল করিম কচি, যুগ্ম সম্পাদক ইয়াসিন চৌধুরী লিটন, শাহেদ
বক্স, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক মো: কামরুল ইসলাম,
মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি এইচ এম রাশেদ খান, চট্টগ্রাম মহানগর
বিএনপির সহ সাংগঠনিক সম্পাদক আবদুল হালিম শপন, রফিকুল ইসলাম, সহ দপ্তর
সম্পাদক মো: ইদ্রিস আলী, মহানগর স্বেচ্ছাসেবক দলের সাধারণ সম্পাদক
বেলায়েত হোসেন বুলু, চট্টগ্রাম মহানগর বিএনপির সহ মুক্তিযোদ্ধা বিষয়ক
সম্পাদক আবদুল মতিন, সহ শ্রম বিষয়ক সম্পাদক আবু মুছা, সহ প্রকাশনা
সম্পাদক আবদুল হাই, সহ গ্রাম সরকার বিষয়ক সম্পাদক সালাহ উদ্দিন লাতু,
কোতোয়ালী থানা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব জাকির হোসেন, নগর বিএনপির
সদস্য ইউসুফ সিকদার, আলকরণ ওয়ার্ড বিএনপির সভাপতি আকতার খান, এনায়েত
বাজার ওয়ার্ড বিএনপির সাধারণ সম্পাদক জাহেদ উল্লাহ রাশেদ, বিএনপি ও অঙ্গ
সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ইকবাল হোসেন সংগ্রাম, জসিম উদ্দিন চৌধুরী, রাজন খান,
মো. দিদারুল ইসলাম দিদার, ডা. কামরুদ্দিন, রিয়াদ হোসেন, এফ এম রুমি, আবুল
হোসেন, মো. সেলিম, মো. দেলোয়ার, এড. এনামুল হক, সাজ্জাদ হোসেন খান,
হাসানুল করিম চৌধুরী, মঞ্জুর আলম, কিং মোতালেব, সৌরভ প্রিয় পাল, সৈয়দ
সাফওয়ান আলী, এন. মো. রিমন, এমরান হোসেন, মীর মোবারক হোসেন প্রমুখ।