রজার ফেদেরার

0
20

রজার ফেদেরার। তিনি ১৯৮১ সালের ৮ আগস্ট সুইজারল্যান্ডের বাজেলে জন্মগ্রহণ করেন। তিনি একজন সুইস পেশাদারী টেনিস খেলোয়াড়। তিনি ইতিহাসের সবচেয়ে সফল টেনিস খেলোয়াড়দের মধ্যে অন্যতম। তিনি বর্তমানে এটিপি র‌্যাংকিং অনুযায়ী বিশ্বের ২ নম্বর খেলোয়াড় । পিট সাম্প্রাস সহ অনেক টেনিস কিংবদন্তী, টেনিস সমালোচক, তাঁর সমসাময়িক খেলোয়াড়সহ অনেকেই মনে করেন তিনি সর্বকালের সেরা টেনিস খেলোয়াড় । তিনি ২রা ফেব্রুয়ারি, ২০০৪ তারিখ ত্থেকে ২০০৮ সালের শেষভাগ পর্যন্ত টানা ২৩৭ সপ্তাহ বিশ্বের ১ নম্বর খেলোয়াড় ছিলেন, যা একটি রেকর্ড ।

২০০৪ সালে ফেদেরার ম্যাট্‌স উইলান্ডারের পর প্রথম খেলোয়াড় হিসেবে একই বছরে তিনটি গ্র্যান্ড স্ল্যাম শিরোপা জয়ের কৃতিত্ব দেখান। ২০০৬ ও ২০০৭ সালে তিনি এই সাফল্যের পুনরাবৃত্তি করেন। তিনি এ পর্যন্ত ১৭টি গ্র্যান্ড স্ল্যাম, ৪টি টেনিস মাস্টার্স কাপ, ও ১৫টি টেনিস মাস্টার্স সিরিজ শিরোপা জিতেছেন। তিনিই একমাত্র খেলোয়াড় যিনি পরপর পাঁচ বছর উইম্বলডন (২০০৩-২০০৭) ও ইউ এস ওপেন (২০০৪-২০০৮) শিরোপা জিতেছেন। ফেদেরার ষষ্ঠ পুরুষ টেনিস খেলোয়াড় হিসেবে চারটি গ্র্যান্ড স্ল্যামই জয়ের কৃতিত্ব দেখান ।

২০০৯ সালের উইম্বলডন ছিল তার ক্যারিয়ারের ১৫তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জয়। এর মাধ্যমে ওপেন যুগে পুরুষ এককে সাবেক নাম্বার ওয়ান পিট সাম্প্রাসের ১৪টি গ্র্যান্ডস্ল্যাম জয়ের রেকর্ড তিনি ভেঙ্গে ফেলেন। বছরের পর বছর একের পর এক অবিস্মরণীয় অর্জনের কারণে তাঁকে “ফেড এক্সপ্রেস” বা “সুইস জাদুকর” হিসেবেও ডাকা হয়।

ফেদেরার সুইজারল্যান্ডের বাজেলের বাজেল ক্যান্টনাল হাসপাতালে জন্ম গ্রহণ করেন। তাঁর পিতা রবার্ট ফেদেরার একজন সুইজারল্যান্ডীয়, বার্নেক থেকে, যা সুইজারল্যান্ড, অস্ট্রিয়া ও জার্মানির সীমান্তের কাছে, এবং তাঁর মা, লাইনেট ফেদেরার (জন্ম ডুরান্ড), ক্যম্পটন পার্ক, গুতেঙ থেকে, একজন সাউথ আফ্রিকান যার পূর্বপুরুষ ডাচ ও ফরাসি প্রটেস্ট্যান্ট। ফেদেরার একজন বড় বোন আছে, ডায়ানা। তিনি সুইজারল্যান্ড ও দক্ষিণ আফ্রিকার দ্বৈত নাগরিক।তাঁর শৈশব কাটে বিরস্ফেলদেন, রিহেন ও পরে মুনচেস্তেন, ফরাসি ও জার্মান সীমান্তের কাছে এবং তিনি সুইস জার্মান, ফরাসি, জার্মান ও ইংরেজি ভাষায় স্বাচ্ছন্দে কথা বলতে পারেন।

ফেদেরার রোমান ক্যাথলিক হিসেবে বড় হন এবং ২০০৬ রোম মাস্টার্সে খেলার সময় ষোড়শ পোপ বেনেডিক্টের সাথে রোমে দেখা করেন। প্রত্যেক সুইস পুরুষ নাগরিকের মত, ফেদেরারও সুইস সশস্ত্রবাহিনীতে বাধ্যতামূলক সামরিক সেবা দান করেন। যদিও তিনি ২০০৩ সালে অনুপযুক্ত গণ্য হন, পিঠের সমস্যার কারনে ও পরবর্তীকালে তাঁর সামরিক বাধ্যবাধকতা পূরণ করা আবশ্যক নয়। তিনি ছোট থেকেই এফসি বাজেল ও সুইজারল্যান্ড জাতীয় ফুটবল দলকে সমর্থণ করে বড় হয়েছেন। ফেদেরার শিশুকালের নানা পরিধির খেলাধুলা করতেন। তিনি তাঁর হাতে চোখের সমন্বয়ের জন্য ব্যাডমিন্টন এবং বাস্কেটবল খেলেছেন। ফেদেরার নানা সাক্ষাৎকারে নিজেকে একজন ক্রিকেটপ্রেমী বলে উল্লেখ করেছে এবং শচীন তেন্ডুলকরের তাঁর দুই বার দেখা হয়। তিনি বলেন “আমি সবসময় অনেক বেশি আগ্রহী যদি একটি বল জড়িত থাকে,”। অধিকাংশ টেনিস প্রতিভাবান, বিপরীতভাবে, অন্যান্য সব খেলা বর্জন করে টেনিস খেলে। পরবর্তি জীবনে, ফেদেরারের সাথে গলফ ফেলোয়াড় টাইগার উডস-এর সাথে বন্ধুত্ব হয়েছে।
পরিবার

সাবেক ডব্লিউটিএ খেলোয়াড় মিরোস্লাভা “মিরকা” ফেদেরার (মিরোস্লাভা ভাভরিনেচ) এর সাথে প্রায় ১০ বছর প্রণয়ের পর ১১ এপ্রিল,২০০৯ তারিখে বাসেলে ঘনিষ্ঠ কিছু পরিচিতজনের সান্নিধ্যে বিবাহবন্ধনে আবদ্ধ হন ফেদেরার। তাদের বর্তমানে দুটি যমজ মেয়েসন্তান রয়েছে,মিলা রোজ ও শারলিন রিভা। মিরকা বর্তমানে তার স্বামীর জনসংযোগ কাজের তত্ত্বাবধান করেন।

সাবেক ওয়ার্ল্ড নাম্বার ওয়ান টেনিস গ্রেট জিমি কনরস ফেদেরারের খেলার ধরন সম্পর্কে একবার বলেছিলেনঃ “হয় তুমি একজন হার্ডকোর্ট স্পেশালিস্ট, না হয় একজন ক্লে কোর্ট স্পেশালিস্ট, না হয় একজন গ্রাসকোর্ট স্পেশালিস্ট……. অথবা তুমি রজার ফেদেরার !” ফেদেরার একজন স্বয়ংসম্পূর্ণ খেলোয়াড় যার বিশেষ খ্যাতি আছে দুর্দান্ত শট খেলার ক্ষমতা ও শৈল্পিক ছন্দের জন্যে। জন ম্যাকেনরোর মতে, ফেদেরারের ফোরহ্যান্ড “টেনিসের সেরা শট”।