রোটারিয়ানদের কার্যক্রম অনুকরণীয়- রোটারি ক্লাব হালদার অভিষেক অনুষ্ঠানে সিটি মেয়র

0
71

রোটারী ক্লাব অব রিভারাইন হালদার ৩য় অভিষেক অনুষ্ঠান গত ২২ জুলাই সোমবার সন্ধ্যায় নগরীর রীমা কনভেনশন সেন্টারে অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানের প্রারম্ভে প্রোগ্রাম কমিটির চেয়ারম্যান পিপি মুহাম্মদ খুরশেদুল আলমের সঞ্চালনায় পবিত্র কোরআন থেকে পাঠ করেন মুহাম্মদ আলতাফ উদ্দিন, রোটারি ইনভোকেশন পাঠ করেন মুহাম্মদ সাইফুদ্দিন শাহীন এবং সাইফুদ্দিন শাহীনের সঞ্চালনায় সমবেত কন্ঠে জাতীয় সংগীত পাঠ করেন সকল রোটারিয়ানবৃন্দ।

দুই পর্বে অনুষ্ঠিত এ অভিষেকের ১ম পর্বে সভাপতিত্ব করেন সদ্য অতীত সভাপতি আনজুমান আরা বেগম। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি ছিলেন চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মাননীয় মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দিন। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা গভর্নর প্রিন্সিপাল এম আতাউর রহমান পীর। সদ্যঅতীত সভাপতি বিগত বছরের কর্মকান্ড তুলে ধরেন এবং অভিষিক্ত সভাপতি মুহাম্মদ মুজিবুর রহমান চৌধুরীকে সভাপতি কলার হস্তান্তর করেন।  মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন ক্লাব অ্যাডভাইজার ও কিডনি ফাউন্ডেশনের সভাপতি রোটারিয়ান ডা: মঈনুল ইসলাম মাহমুদ, সংবর্ধিত অতিথি চট্টগ্রাম ডেকোরেটার্স মালিক সমিতির সভাপতি জনাব হাজী মুহাম্মদ সাহাব উদ্দীন, পিডিজি রোটারিয়ান আব্দুল আহাদ, পিডিজি রোটারিয়ান তৈয়ব চৌধুরী, রোটারি কর্ণফুলী জোনের লেফটেনেন্ট গর্ভনর রোটারিয়ান মাহফুজুল হক, এডি. লেফ. গভ. রোটারিয়ান মুহাম্মদ ওমর আলী ফয়সাল, অ্যাসিস্টেন্ট গভর্নর মাহবুবুর রহমান। ক্লাব সভাপতি মুহাম্মদ মুজিবুর রহমান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ২য় পর্বে অতিথি বক্তব্যের পর ক্লাবের নতুন কমিটির পরিচয়পর্ব অনুষ্ঠিত হয়। এবারের নতুন কমিটিতে অভিষিক্ত হন প্রেসিডেন্ট-মুহাম্মদ মুজিবুর রহমান চৌধুরী, আইপিপি-আনজুমান আরা বেগম, প্রেসিডেন্ট ইলেক্ট-মুহাম্মদ ওমর ফারুক, ক্লাব ট্রেইনার-সিপি মুহাম্মদ ওমর আলী ফয়সাল, ভাইস প্রেসিডেন্ট-মোহাম্মদ জাবেদ ও ইরফানুল আলম দোভাষ, সেক্রেটারি- ইন্টেরিয়র আর্কিটেক্ট শাদ ইরশাদ, জয়েন্ট সেক্রেটারি-এমডি সাইফুদ্দিন শাহীন ও এমডি সাকের উল্লাহ চৌং, ট্রেজারার-মুহাম্মদ আলতাফ উদ্দিন, ক্লাব সার্ভিস ডিরেক্টর-এড.পাপড়ি মহিউদ্দিন, ভোকেশনাল সার্ভিস ডিরেক্টর-ফারজানা আকতার, কমিউনিটি সার্ভিস ডিরেক্টর-আলহাজ্ব জসিম উদ্দিন, ইন্টারন্যাশনাল ডিরেক্টর-পিপি মুহাম্মদ খুরশেদুল আলম, ইয়ুথ সর্ভিস ডিরেক্টর-সিরাজুল ইসলাম হাওলাদার, বুলেটিন এডিটর-আমিনুল ইসলাম রিপন, সার্জেন্ট এট আর্মস-আবদুল্লাহ আল মামুন ও মুহাম্মদ হোসাইন। এছাড়া মুহাম্মদ আব্দুল আজিজ, নুরুল আমিন, আবুল আজাদ, নুরুল হুদা, মুহাম্মদ হোসাইন, মুহাম্মদ জিল্লুর রহমান, গিয়াস উদ্দিন আহমদ সহ মোট দশজনকে আনুষ্ঠানিকভাবে ক্লাবের সদস্যপদ দেয়া হয়। প্রধান অতিথি মেয়র আ.জ.ম নাছির উদ্দিন বলেন, বাংলাদেশে রোটারির ভাবমূর্তি অনেক বৃদ্ধি পেয়েছে। রোটারিয়ানরা তাদের কর্মসেবার মাধ্যমে সমাজের অন্যান্য সংগঠন ও বিত্তশালীদের জন্য অনুকরণীয় হয়ে উঠেছেন। আমি আশা করবো রোটারিয়ানরা এ সেবার পরিধি  আরো অনেকাংশে বৃদ্ধি করে বাংলাদেশের আর্তসামাজিক উন্নয়নে আরো ভূমিকা রাখবে। আর রোটারি কার্যক্রমে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন সব সময় সযোগীতার হাত বাড়িয়ে দেবে। রোটারি জেলা গভর্নর প্রিন্সিপাল এম আতাউর রহমান পীর বলেন, রোটারি গত প্রায় ১০০ বছর ধরে সারাবিশ্বে পোলিও নির্মূলসহ মানবতার সেবায় কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশের রোটারি ক্লাবগুলো শিক্ষা, চিকিৎসা, সুপেয় পানি, নারীর জীবনমান উন্নয়ন, বয়স্কভাতা প্রকল্প, সবুজায়ন সহ বিভিন্ন সমাজসেবা মূলক কাজ করে যাচ্ছে। সমাজসেবায় বিশেষ ভূমিকা রাখার জন্য তিনি রোটারি ক্লাব অব রিভারাইন হালদার ভূয়সী প্রশংসা করেন। অনুষ্ঠানে ক্লাবের পক্ষ থেকে উপস্থিত বেশ কিছু প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হয়। তারমধ্যে কিডনি ফাউন্ডেশনকে দুই লক্ষ বিশ হাজার টাকা, দশজন শির্ক্ষাথীদের মাঝে এক লক্ষ টাকা শিক্ষাবৃত্তি প্রদান, সেনিটেশন প্রকল্পে পঞ্চাশ হাজার টাকা, দুইজন অসহায় মহিলাকে সেলাই মেশিন প্রদান, রোটারি ফাউন্ডেশনে একলক্ষ সত্তর হাজার টাকা অনুদান, একজন ভ্যান চালককে নতুন ভ্যানগাড়ী বাবদ দশ হাজার টাকা প্রদান, দুটি রোটারি ক্লাবের ফ্রি ক্লিনিকে পচিশ হাজার টাকার ঔষদ প্রদান, এবং বয়স্কভাতা তহবিলে পঞ্চাশ হাজার টাকা সহ প্রায় দশলক্ষ টাকার সামাজিক অনুদান প্রদান করা হয়। সবশেষে আগত অতিথিদের ধন্যবাদ জ্ঞাপন করেন সিপি মুহাম্মদ ওমর আলী ফয়সাল। ক্লাবে বিশেষ অবদানের জন্য অনুষ্ঠান কমিটির সেক্রেটারি মোহাম্মদ জাবেদ সহ ক্লাবের বিভিন্ন রোটারিয়ানদেরকে সম্মাননা স্মারক প্রদান করা।