লাঙ্গলের জয়ের ধারা অব্যাহত রাখলেন সাদ

0
69

হুসেইন মুহাম্মদ এরশাদ মানেই রংপুর-৩ আসন। সেই সূত্রে স্ত্রী রওশনও একই আসনে নির্বাচনে দাঁড়িয়ে ব্যর্থ হননি। এরশাদের মৃত্যুর পর আসনটি শূন্য হয়ে যায়। বাবার উত্তরসূরী হিসেবে হাল ধরতে উপ-নির্বাচনে অংশ নিলেন এরশাদপুত্র রাহগির আল মাহি সাদ এরশাদ। তিনিও ব্যর্থ নন। রংপুর-৩ এরশাদ পরিবারেরই রয়ে গেল। নির্বাচনে নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির প্রার্থী রিটা রহমানকে বিপুল ব্যবধানে হারিয়ে লাঙ্গলের জয়ের ধারা অব্যাহত রাখলেন সাদ এরশাদ।

১৭৫টি কেন্দ্রে ইভিএমে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়।
আজ এই নির্বাচনে ছিলো ভোটারদের অনীহা। দিনভর ভোটের হার ছিল ২১.৩১ শতাংশ। তারপরেও কাস্ট হওয়া ভোটের প্রাথমিক ফলে এগিয়ে আছেন সাদ এরশাদ। তিনি পেয়েছেন ৫৮ হাজার ৮৭৮ ভোট। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপির রিটা রহমান ধানের শীষ প্রতীকে পেয়েছেন ১৬ হাজার ৯৪৭। আর এরশাদের ভাতিজা স্বতন্ত্র প্রার্থী হোসেন মকবুল শাহরিয়ার আসিফ মটরগাড়ি প্রতীকে পেয়েছেন ১৪ হাজার ৯৮৪ ভোট। এছাড়াও গণফ্রন্টের প্রার্থী কাজী মো. শহীদুল্লাহ বায়েজিদ (মাছ) ১৬৬২, খেলাফত মজলিসের তৌহিদুর রহমান মন্ডল (দেয়াল ঘড়ি) ৯২৪ এবং এনপিপির শফিউল আলম (আম) প্রতীকে পেয়েছেন ৬১১ ভোট।
এই আসনে মোট ভোটার ৪ লাখ ৪১ হাজার ২২৪ জন। এর মধ্যে পুরুষ ২ লাখ ২০ হাজার ৮২৩ এবং নারী ভোটার ২ লাখ ২০ হাজার ৪০১ জন।