সঙ্গী বাছতে টিপস

0
3

অনেক সময়ই সঠিক সঙ্গী বাছতে ভুল করি আমরা। যার পরিণতিও খারাপ হয়। আর সম্পর্কের গতি ঠিক না থাকলে জীবনের গতিও ঠিক থাকে না। একরাশ হতাশা, অবসাদ ঘিরে ধরে। একটু সতর্ক হলেই অনেকে আগে থেকে বুঝতে পারে সঙ্গীর আচারণ।

সম্পর্ক পাকাপোক্ত করার আগে কিছু বিষয় অবশ্যই জানা প্রয়োজন। কারণ আপনার সঙ্গীর এমন কিছু আচারণ থাকতে পারে যা আপনার জন্য হতে পারে বিপত্তির কারণ।
আসুন জেনে নেই সঙ্গীর যেসব স্বভাব থাকলে হতে পারে বিপত্তি।

ভুল খুঁজে বেড়ানো

আপনার সঙ্গী কি সব সময়ই আপনার ভুল খুঁজে বেড়ান। তা হলে তা কিন্তু ভবিষ্যতে আপনাদের সম্পর্কের অবনতি ঘটাবে। আপনার মতামতকে যদি গুরুত্ব না দেন তিনি, তা হলে বুঝবেন এই সম্পর্ক বেশিদিন টিকবে না।

নিজের ভালমন্দ

সঙ্গী যদি সব সময়ই নিজের ভালমন্দের কথা ভেবে থাকেন তা হলেও এখনই সতর্ক হন। বিয়ের পিঁড়িতে বসার আগে আরও ভাল ভাবে ভেবে দেখুন। না হলে পরিণতি খারাপ হতে পারে।

উপহার

উপহার না দিলে বা কম দামি উপহার দিলে রেগে যাওয়া, পছন্দ না করা, নিজের স্ট্যাটাস জাহির করা— এ সব সম্পর্কের জন্য ভাল নয়। এর অর্থ আপনার থেকে টাকা-পয়সার প্রতি প্রেম তাঁর অনেক বেশি। আপনার পার্টনার নিশ্চয় এমন নয়?

অন্যদিকে নজর

দু’জনে এক সঙ্গে সময় কাটাচ্ছেন অথচ বারবারই তাঁর দৃষ্টি চলে যাচ্ছে আশেপাশে হেঁটে যাওয়া অন্যান্য পুরুষ বা নারীর দিকে। যদি এরকম হয়, তা হলেও কিন্তু সম্পর্ক নিয়ে অনেক বেশি ভাবনার প্রয়োজন আছে।

অন্যের সমালোচনা

কথায় আছে মেয়েরা মাত্রই নাকি গসিপ প্রিয়। কথাটার সত্য নাকি মিথ্যা এ নিয়ে আলোচনায় যাচ্ছি না। নারী-পুরুষ নির্বিশেষে গসিপ প্রত্যেকেই করে। তবে অহেতুক অন্যের সমালোচনা করা উচিত নয়। সঙ্গী এরকম করে কি না একটু লক্ষ করে দেখুন তো?

বিয়ের কথা

বিয়ের কথা বলেন কোনও না কোনও কারণ দেখিয়ে এড়িয়ে যায় কি সঙ্গী? অনেক সম্পর্কেই এটা শোনা যায়। উভয়ে মানসিকভাবে পুরোপুরি প্রস্তুত না হয়ে কখনই বিয়ে করা উচিত নয়। হতেই পারে সত্যিই তেমন কোনও বাধা রয়েছে। তা হলেও সঙ্গী বলা কারণও কতটা গ্রহণযোগ্য তা যুক্তি দিয়ে বোঝার চেষ্টা করুন।