সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ চ্যাম্পিয়নশিপে …

0
27

২০১৭ সালে অনুষ্ঠিত সাফ অনূর্ধ্ব-১৮ চ্যাম্পিয়নশিপে রানার্স আপ হয়েছিল বাংলাদেশ। কিন্তু ওই আসরে, কোনো ফাইনাল হয়নি। লীগ পর্বের খেলায় পয়েন্ট টেবিলের দ্বিতীয় স্থানে থেকে শেষ করতে হয় বাংলাদেশকে। চ্যাম্পিয়ন নেপালের সমান পয়েন্ট পেলেও হেড টু হেডে পিছিয়ে থেকে ট্রফিতে হাত রাখা হয়নি সুফিল-জাফরদের। এবার ফাইনালে তারা, গত আসরের শিরোপা না পাওয়ার আক্ষেপটা এবার কাটাতে চান সুফিল-জাফরদের অনুজ ইয়াছিন আরাফাতরা। আজ কাঠমান্ডুর হালচুক স্টেডিয়ামে বিকাল ৩টার ফাইনালে বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ ভারত। যাদের সঙ্গে গ্রুপ পর্বে গোল শূন্য ড্র করেছিল বাংলাদেশ।
টুর্নামেন্টের প্রথম সেমিফাইনালে ভুটানকে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত করে ফাইনাল নিশ্চিত করে বাংলাদেশ। দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ভারতের প্রতিপক্ষ ছিল মালদ্বীপ। দ্বীপ দেশটিকে ৪-০ গোলে উড়িয়ে দেয় ভারত। গ্রুপ পর্বেও সমানে সমান লড়াই করেছে দু’দল। শ্রীলঙ্কাকে ৩-০ গোলে হারিয়ে টুর্নামেন্ট শুরু করে বাংলাদেশ। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে একই ব্যবধানে জয় পায় ভারত। গ্রুপে দু’দলের লড়াইও শেষ হয় অমীমাংসিতভাবে। পরবর্তীতে টস ভাগ্যে গ্রুপ সেরা হয় ভারত। দুই সেমিফাইনালের ফলাফল একটা বিষয় পরিষ্কার করেছে, ফাইনালে লড়াই হবে সেয়ানে সেয়ানে। তবে এসব নিয়ে মোটেও চিন্তিত নন বাংলাদেশের হেড কোচ অ্যান্ডু্র পিটার টার্নার। ফাইনালে আগে তার স্বস্তি ফরোয়ার্ডরা গোল পাওয়াতে। সেমিফাইনালে ছেলেদের পারফরম্যান্স মূল্যায়ন করতে গিয়ে তিনি বলেন, ‘গোলমুখে আমাদের ফিনিশিং ভালো হয়েছে। দল ভালো খেলেছে। সুশৃঙ্খলভাবে খেলেছে ছেলেরা। এখন আমরা ফাইনালে উঠেছি। এটা ফাইনালেও আমি প্রত্যাশা করছি’। ফাইনালের পরিকল্পনা নিয়ে এই ইংলিশ কোচ বলেন, আমরা গ্রুপ পর্বে ভারতের সঙ্গে খেলেছি। তাদের সম্পর্কে আমাদের ধারণা আছে। এটা নিয়ে আমি আমার পরিকল্পনা সাজাবো। আশা করছি নতুন দিনে নতুন কিছু করে দেখাবে ছেলেরা। দলের এই পারফরম্যান্স ফাইনালেও দেখতে চান অধিনায়ক ইয়াসিন আরাফাত, ‘সেমিফাইনালে সবাই ভালো খেলেছে। কোচের নির্দেশনায় সবাই নিজেদের দায়িত্ব পালন করতে পেরেছে। এমন পারফরম্যান্স ধরে রাখতে চাই। ফাইনালে ভালো করার লক্ষ্য আমাদের।’ প্রতিপক্ষ ভারত সম্পর্কে জানতে চাইলে ইয়াসিন বলেন, ভারত শক্তিশালী দল। তাদের বিপক্ষে নিশ্চয়ই আমাদের কোনো না কোনা পরিকল্পনা থাকবে। মাঠে কোচের পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করেই ম্যাচটি জিততে চাই। শিরোপা নিয়ে দেশে ফিরতে দেশবাসীর দোয়া চেয়েছেন মোহাম্মদ হৃদয়, ‘আল্লাহর কাছে শুকরিয়া যে ফাইনালে উঠেছি। এখন ট্রফি জিততে চাই। সবাই দোয়া করবেন যেন শিরোপা জিতে দেশে ফিরতে পারি।’ এদিকে দারুণ এক ফাইনালের অপেক্ষায় আছেন ভারতীয় কোচ ফ্লোড পিন্টু। গতকাল সংবাদ সম্মেলনে এ কোচ বলেন, টুর্নামেন্টের সেরা দুই দলই ফাইনালে উঠেছে। আশা করছি উপভোগ্য একটি ফাইনাল হবে। ফাইনালে নিজেদের প্রস্তুতি নিয়ে পিন্টু বলেন, টুর্নামেন্টে আমরা ম্যাচ বাই ম্যাচ উন্নতি করেছি। আশা করছি এই ধারাবাহিকতা বজায় রেখেই শিরোপা নিয়ে দেশে ফিরতো পারবো।
এটি যুব সাফের তৃতীয় আসর। ২০১৫ ও ২০১৭ সালের দুটি আসরে চ্যাম্পিয়ন হয়েছিল নেপাল। প্রথমবার রানার্সআপ হয়েছিল ভারত, দ্বিতীয়বার বাংলাদেশ। এবার গ্রুপ পর্ব থেকেই বাদ পড়েছে দুইবারের চ্যাম্পিয়নরা।