সালমানের চলে যাওয়া কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না

0
33

চলচ্চিত্রের এক উজ্জ্বল নক্ষত্রের নাম সালমান শাহ। মাত্র চার বছরের চলচ্চিত্র ক্যারিয়ারে নানা চরিত্রে দারুণ অভিনয়শৈলী দিয়ে জয় করেছেন অগণিত দর্শক হৃদয়। অভিনয় করেছেন ২৭টি সিনেমায়। ১৯৯৬ সালের ৬ সেপ্টেম্বর এই অভিনেতার রহস্যজনক মৃত্যু হয়। আজ তার ২৩তম মৃত্যুবার্ষিকী। সালমান শাহর বেশিরভাগ ছবির নায়িকা ছিলেন শাবনূর। অমর নায়কের বিদায়ের দিনে তাকে নিয়ে স্মৃতিচারণ করেছেন শাবনূর—

অভিনয় জীবনে অনেকে ছিলেন সহশিল্পী। কিন্তু কেউ কেউ ছিলেন তার চেয়ে বেশি কিছু। সালমান শাহ সেই অভিনেতাদের একজন, যে শুধু সহশিল্পী নন, ছিলেন বন্ধু, সুহৃদ, পরামর্শকসহ অনেক কিছু। অল্প বয়সে আমার চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু হয়েছিল। পরিচালক যেভাবে দিকনির্দেশনা দিয়েছেন, সেভাবেই কাজ করে গেছি। কাজ ভালো বা মন্দ– কেমন হচ্ছে তা স্পষ্ট করে বলার মতো কাউকে পাশে পাইনি।

সালমানের সঙ্গে জুটি হয়ে কাজ শুরু করার পর থেকে ভালো-মন্দের বিষয়টি স্পষ্ট হয়েছে। একে অন্যের অভিনয় নিয়ে যেমন সমালোচনা করতাম, তেমনি অভিনয়ে নিজেকে ভেঙে আরও কতভাবে উপস্থাপন করা যায়, তা নিয়ে পরিকল্পনা করতাম আমরা। এভাবেই মাত্র চার বছরে আমরা ১৪টি ছবিতে জুটি হয়েছি। কিন্তু স্বপ্নেও ভাবিনি এ জুটির ভাঙন ধরবে, একজন আরেকজনকে ছেড়ে পাড়ি দেবে না ফেরার দেশে। সালমানের এই চলে যাওয়া তাই কোনোভাবেই মেনে নেওয়া যায় না। কারণ, তার আরও অনেক কিছু দেওয়ার ছিল।