সেন্টমার্টিনের ছেঁড়াদ্বীপে পর্যটক প্রবেশ নিষিদ্ধ

0
136

জনপ্রিয় পর্যটনকেন্দ্র সেন্টমার্টিনের ছেঁড়াদ্বীপে পর্যটক প্রবেশ নিষিদ্ধ করা হচ্ছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পরিবেশ অধিদফতরের পরিচালক সোলায়মান হায়দার।

জানা যায়, শুধু পর্যটক নিষিদ্ধই নয়, সেন্টমার্টিনে অবৈধ ১০৬টি আবাসিক হোটেল সরিয়ে নেয়া হচ্ছে বলেও জানান সোলায়মান।

সোলায়মান জানান, প্রবালদ্বীপের পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য রক্ষায় এ উদ্যোগ নিয়েছে পরিবেশ অধিদফতর। সেন্টমার্টিনের সব জায়গা পর্যটকদের জন্য নয়। ছেঁড়াদ্বীপ পরিবেশ মন্ত্রণালয়ের নিজস্ব জমি। পর্যটকদের আনাগোনায় এ দ্বীপের কোরাল দিনদিন নষ্ট হচ্ছে। দ্বীপ ও কোরাল বাঁচিয়ে রাখতে এ সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে। তিনি আরও বলেন, ছেঁড়াদ্বীপ সংরক্ষণে সেখানে কাউকে যেতে দেয়া হবে না। পুরো সেন্টমার্টিন নিয়ে সরকারের পরিকল্পনা রয়েছে। যা পর্যায়ক্রমে বাস্তবায়ন করা হবে। কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা পেলে দ্বীপের সব হোটেল ভেঙে দেয়া হবে।

এ বিষয়ে পরিবেশ বিষয়ক সংস্থা ইয়ুথ এনভায়রনমেন্ট সোসাইটির প্রধান নির্বাহী এম ইব্রাহিম খলিল মামুন বলেন, ছেড়াদ্বীপ ও সেন্টমার্টিন সংরক্ষণে সরকারের উদ্যোগ কার্যকর দেখতে চাই। নইলে একমাত্র প্রবাল দ্বীপটি হারিয়ে যাবে। সেন্টমার্টিনের ইউপি সদস্য ও প্যানেল চেয়ারম্যান আবদুর রহমান বলেন, পরিবেশ অধিদফতর ছেঁড়াদ্বীপে পর্যটক না যেতে নির্দেশনা দিয়েছে। দ্বীপের বাসিন্দা আবদুল মালেক বলেন, প্রতিদিন হাজারো পর্যটক সেন্টমার্টিন-ছেড়াদ্বীপ ভ্রমণে আসছে। তারা সৈকতে আবর্জনা ফেলে সৈকতে। এতে দ্বীপের পরিবেশ নষ্ট হচ্ছে।