স্বাস্থ্যসেবা থেকে যেনো নগরবাসী বঞ্চিত না হয়: মেয়র

0
46

স্বাস্থ্যসেবায় আগের জৌলুস ফিরিতে আনতে চান মেয়র রেজাউল করিম এস.ডি.জীবন: চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব এম.রেজাউল করিম চৌধুরী বলেছেন, নাগরিক স্বাস্থ্য সেবা সুনিশ্চিত করতে হবে। মানুষের মৌলিক চাহিদার মধ্যে স্বাস্থ্যসেবা অন্যতম। স্বাস্থ্যই যদি ঠিক না থাকে তাহলে মানুষ আর অন্য সেবা কিভাবে নিবে? অসুস্থ মানুষ কখনোই মানসিকভাবে দৃঢ় হয় না। তাই, নগরবাসী যাতে স্বাস্থ্যসেবা থেকে বঞ্চিত না হয় সেদিকে বিশেষভাবে নজর রাখার জন্য তিনি স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের অনুরোধ জানান। প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা সহ সকল স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের কাছে জবাব চেয়ে সিটি মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী আরো বলেন, সাবেক মেয়র প্রয়াত এবিএম মহিউদ্দিন চৌধুরীর সময়ে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশন এর স্বাস্থ্য বিভাগের অনেক সুনাম ছিলো। আমার প্রশ্ন হলো, স্বাস্থ্য বিভাগের আজকে এই নাজুক অবস্থা কেনো? কি কারণে জৌলুস হারাতে বসেছে স্বাস্থ্য বিভাগ? সোমবার ২২ ফেব্রুয়ারি চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধানদের সাথে মতবিনিময়কালে সিটি মেয়র রেজাউল করিম চৌধুরী এসব কথা বলেন। মেমন হাসপাতালের জনপ্রিয়তার কথা উল্লেখ করে সিটি মেয়র বলেন, ভালো নাগরিক সেবা ও মানের কারণে একসময় বহু দুর-দুরান্ত থেকে রোগীরা মেমন হাসপাতালে আসতো। এখন ঠিক তেমনটা দেখা যায় না। সকলের আন্তরিকতার মাধ্যমে স্বাস্থ্য বিভাগের হারানো জৌলুস ফিরিয়ে আনতে হবে। স্বাস্থ্যকেন্দ্রের পরিবেশের বিষয়ে সুনজর দেয়ার বিষয়ে তিনি বলেন, জনগণ যেনো স্বাস্থ্যসেবা নিতে এসে অস্বস্থিতে না পড়ে।স্বাস্থ্যকেন্দ্রের পরিবেশ স্বাস্থ্য সম্মত হওয়া চাই। অপ্রিয় হলেও সত্য যে, বিভিন্ন মিডিয়াতে সিটি কর্পোরেশনের কিছু কাজ নিয়ে নেতিবাচক সংবাদ প্রকাশিত হয়েছে। এসব কারণে যারা কর্পোরেশনের সাথে জড়িত তাদেরকে তাদের পরিবারের কাছে প্রশ্নের সম্মুখীন হতে হয়। নাগরিক স্বাস্থ্যসেবা নিয়ে চিকিৎসকদের যেনো পরিবারের কাছে কথা শুনতে না হয় সেবিষয়ে বিশেষভাবে নজর দিতে বলেন মেয়র রেজাউল। নগরবাসীর স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতকল্পে কি কারণে স্বাস্থ্যসেবায় অনীহা, কোথায় কোথায় বাঁধা, সেবিষয়ে স্বল্প সময়ের মধ্যে প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দেন সিটি মেয়র। তিনি আরো বলেন,সবসময় নানা সীমাবদ্ধতা, সমস্যা থাকবে তা সত্ত্বেও নাগরিক সুবিধা ও সেবাকে অগ্রাধিকার দিয়ে স্বাস্থ্যসেবাকে পরিকল্পিতভাবে সকল ধরনের সরঞ্জাম, যন্ত্রপাতি ক্রয় ও বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকদের সমন্বয়ে আধুনিকায়ন করা হবে। যাতে বাংলাদেশের মধ্যে চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনও নগরীর চিকিৎসাসেবায় মডেল হয়ে থাকে । স্বাস্থ্যসেবার সকল চাহিদা ও প্রয়োজনীয়তা কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী ও প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা বসে ঠিক করবেন। প্রয়োজনীয় যা সহযোগিতা করা লাগে মেয়র হিসেবে আমি অবশ্যই করবো। তবে কর্পোরেশনের কর্মরত চিকিৎসকদের দায়িত্ব নিয়ে কাজ করতে হবে। এক্ষেত্রে কোন অবহেলা গাফেলতি হলে কেউ ছাড় পাবেন না। চট্টগ্রাম সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা কাজী মুহাম্মদ মোজাম্মেল হকের সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন মেয়রের একান্ত সচিব আবুল হাশেম, কর্পোরেশনের প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. সেলিম আকতার চৌধুরী, ডা. মোহম্মদ আলী, ডা.নাসিম ভূঁইয়া, ডা.শাহীন পারভীন, ডা.দীপা ত্রিপুরা, ডা.হাসান মুরাদ চৌধুরী, ডা.মুজিবুল আলম, ডা. সুমন তালুকদার, ডা. সৈয়দ দিদারুল মুনির রুবেল, ডা. তৌহিদুল আনোয়ার, ডা.উম্মে কুলসুম সুমি প্রমুখ।