৮ দফা দাবি জানিয়ে কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ডিপ্লোমা নার্সেস ঐক্য পরিষদ

0
8

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ঘোষণা অনুযায়ী ১০ হাজার নার্স নিয়োগ দেয়াসহ ৮ দফা দাবি জানিয়ে কর্মসূচি ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ডিপ্লোমা নার্সেস ঐক্য পরিষদ।

রোববার বিকেলে জাতীয় প্রেসক্লাবের কনফারেন্স লাউঞ্জে অনুষ্ঠিত এক সংবাদ সম্মেলনে দাবিগুলো উত্থাপনসহ কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়।

লিখিত বক্তব্যে ডিপ্লোমা নার্সেস ওয়েলফেয়ারের সভাপতি ইসমত আরা পারভীন বলেন, ‘বাংলাদেশের ১৬ কোটি মানুষের মধ্যে ৬৩ হাজার ডাক্তার রয়েছে অথচ নার্সের সংখ্যা মাত্র ৩৩ হাজার। যার মধ্যে ১৭ হাজার সরকারি চাকরিতে ন্যস্ত। আন্তর্জাতিক মান অনুযায়ী একজন ডাক্তারের বিপরীতে ৩ জন এবং একজন রোগীর বিপরীতে ৪ জন ও প্রতিজন মুমূর্ষ রোগীর জন্য একজন নার্স থাকার কথা। কিন্তু বাংলাদেশের চিত্র সম্পূর্ণ ভিন্ন। এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য তিনমাস পূর্বে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আরো ১০ হাজার নার্স নিয়োগের ঘোষণা দিয়েছিলেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘সেবা পরিদপ্তরের আওতাধীন ১৭৯টি প্রথম শ্রেণীর পদ থাকা সত্ত্বেও এ পদে কোনো নার্স নিয়োগ দেয়া হয়নি। সংশ্লিষ্ট পরিদপ্তর এবং মন্ত্রণালয়ের আন্তরিকতার অভাবে বিগত ৩০-৩২বছরে নার্সদের কোনো পদোন্নতি হয়নি এবং দীর্ঘ ৩৭ বছরেও পরিদপ্তরের প্রসাশনিক অবকাঠামোর কোনো পরিবর্তন হয়নি।’

এ অবস্থা থেকে উত্তরণের জন্য অতিসত্তর ৮দফা দাবি বাস্তবায়নের জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানান তিনি।

এ সময় কর্মসূচি ঘোষণা দিয়ে তিনি বলেন, ‘আগামী ২০ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী বরাবর স্বারকলিপি প্রদান, ২৪ নভেম্বর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হবে। এরপরও দাবি মানা না হলে আগামী ১০ ডিসেম্বর শহীদ মিনারের সামনে সমাবেশ করবে নার্সেস সংগঠনগুলো।’

সংবাদ সম্মেলনে আরো উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ ডিপ্লোমা নার্সেস অ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি সাবিনা শারমিন, মহাসচিব মো. মোস্তাফিজুর রহমান, ডিপ্লোমা স্টুডেন্ট নার্সেস ইউনিয়নের সভাপতি আসমা ইসরাত, বাংলাদেশ ডিপ্লোমা নার্সেস ওয়েলফেয়ারের মহাসচিব ছালেহা খাতুন, ডিপ্লোমা বেকার নার্সেস অ্যাসোসিয়েশনের সহ সভাপতি নুরুন নাহার প্রমুখ।