৯৯৯-এ ফোন পেয়ে তিন তরুণীকে উদ্ধার

0
36

৯৯৯-এ ফোন পেয়ে রাজধানীর খিলগাঁও থেকে পাচারের শিকার তিন তরুণীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ সময় এক নারী পাচারকারীকে আটক করা হয়েছে।

শুক্র ও শনিবার উদ্ধারকৃত তিন তরুণীকে তাদের স্বজনের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। আর আটক নারী পাচারকারীরর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে তাকে আদালতে পাঠানো হয়েছে।

পুলিশ জানায়, গত বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা ৩১ মিনিটে আলম (ছদ্মনাম) নামে এক ব্যক্তি খিলগাঁওয়ের গোড়ান থেকে ৯৯৯-এ ফোন করে জরুরি পুলিশি সহায়তা চান।

আলম ফোনে জানান, গোড়ানের ৮ নম্বর সড়কের একটি পাঁচ তলা ভবনে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে সিলেট থেকে তিনটি মেয়েকে এনে আটকে রেখে মারধর করা হচ্ছে। পাচারকারীদের কবল থেকে একটি মেয়ে কৌশলে পালিয়ে আলমের কাছে সাহায্য চাইলে তিনি ৯৯৯-এ ফোন করেন।

তাৎক্ষণিকভাবে খিলগাঁও থানাকে অবহিত করে ফোর্স পাঠানোর নির্দেশ দেয়া হয়। পরে খিলগাঁও থানার এসআই শাখাওয়াত ফোর্সসহ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌঁছে সন্দিগ্ধ নামে ৫ম তলায় ওই ভবনটিতে অভিযান চালায়। সেখান থেকে রোকসানা (৩০) নামে এক নারী পাচারকারীকে আটক করে এবং পাচারের শিকার তিন তরুণীকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে পুলিশ।

তিন তরুণী উদ্ধার ও এক নারী পাচারকারী আটকের বিষয়টি নিশ্চিত করে খিলগাঁও থানার ওসি মশিউর রহমান যুগান্তরকে বলেন, বৃহস্পতিবার রাতে ওই নারী পাচারকারীর বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে। তাকে আদালতে পাঠিয়ে দেয়া হয়েছে।

ওসি জানান, উদ্ধার হওয়া তিন তরুণীর মধ্যে দুইজনকে শুক্রবার তাদের অভিভাবকরা নিজ জিম্মায় নিয়ে গেছেন। অপর তরুণীকে ভিকটিম সাপোর্ট সেন্টারে রাখা হয়েছিল। শনিবার তাকেও তার বাবা-মা এসে নিয়ে গেছে।