হ্যাক হয়নি, স্ক্র্যাপিং হয়েছে ২০১৯ এর সেপ্টেম্বরের আগেই: ফেসবুক

0
28

বিশ্বজুড়ে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের আইডি হ্যাক হয়ে তথ্য ফাঁস হয়েছে বলে সম্প্রতি যে খবর প্রকাশিত হয়েছে, তার ব্যাখ্যা দিয়েছে ফেসবুক। বিশ্বের বৃহত্তম সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমটি বলছে, ফেসবুক হ্যাক হয়নি বরং স্ক্র্যাপিং এর মাধ্যমে খুবই সাধারণ কিছু তথ্য তৃতীয় পক্ষের হাতে গেছে।
আর এ ঘটনাটি ঘটেছে ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরের আগেই, যে বিষয়ে আগেও সংবাদ প্রকাশিত হয়।

মঙ্গলবার (৬ এপ্রিল) এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এমনটাই দাবি করে ফেসবুক। প্রতিষ্ঠানটির প্রোডাক্ট ম্যানেজমেন্ট ডিরেক্টর মাইক ক্লার্ক বলেন, ‘৫৩০ মিলিয়ন ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য প্রকাশ্যে উন্মোচিত হয়েছে’- ৩ এপ্রিল বিজনেস ইনসাইডারে প্রকাশিত এ সংবাদটি আসলে সাম্প্রতিক ঘটনার নয়, এটি পুরনো ঘটনা। আমরা এটা নিয়ে কাজ করেছি এবং করছি। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরের আগেই যে স্ক্র্যাপিংয়ের ঘটনা ঘটেছিল, সে সময়ের বিষয় এটি, যা নিয়ে আগেও সংবাদ প্রকাশিত হয়েছিল।

বিজ্ঞপ্তিতে স্ক্র্যাপিংয়ের ব্যাখ্যাও দেন মাইক ক্লার্ক। ক্লার্ক বলেন, স্ক্র্যাপিং খুবই সাধারণ এবং নিয়মিত ঘটনা, যেখানে একটি সফটওয়্যারের মাধ্যমে ইন্টারনেট থেকে ব্যবহারকারীদের সাধারণ কিছু তথ্য সংগ্রহ করা হয়। এগুলো সেই তথ্য, যা ব্যবহারকারী ‘পাবলিকলি’ প্রকাশ করে রাখেন। পরে সেই তথ্যগুলো বিভিন্ন অনলাইন প্ল্যাটফর্মে শেয়ার করা হয়।

তবে যে প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে স্ক্র্যাপিং করা হয়েছিল, সেগুলো ফেসবুক থেকে সরিয়ে ফেলা হয়েছে বলেও দাবি করে প্রতিষ্ঠানটি।

একই সঙ্গে ফেসবুক ব্যবহারকারীদের আইডি নিরাপদ আছে বলেও আশ্বস্ত করেন মাইক ক্লার্ক। বাড়তি সতর্কতা হিসেবে একাউন্টে আরও নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণের পরামর্শ দেন এ কর্মকর্তা।

মাইক ক্লার্ক বলেন, বিষয়টি আমাদের নজরে আসার পর থেকেই ২০১৯ সালেই এনিয়ে আমরা কাজ করেছি। যেখানে যেখানে ব্যবহারকারীদের তথ্য প্রকাশিত হয়েছে, সেখান থেকে তথ্যগুলো মুছে ফেলতেও আমরা কাজ করে যাচ্ছি। একই সঙ্গে আমাদের একটি বিশেষায়িত দল এ বিষয়ে কাজ করছে, যেন আর কখনও কোনো তৃতীয় পক্ষ আমাদের প্ল্যাটফর্মের নিয়ম ভঙ্গ করে এমন কাজ করতে না পারে।