নিজেদের পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতায় করণীয়:

0
45

কথায় কথায় পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা নিয়ে লেকচার দেয়ার লোক অনেকেই আছেন। কিন্তু নিজেদের জীবনে এই সব লেকচারের 11সিঁকিভাগ বাস্তবায়নেও এদের ভীষণ আলসেমী। তবে অপরিচ্ছন্ন একজন মানুষ হিসেবে যদি প্রিয়জনের কাছে নিজের পরিচয়টাকে পাঁকাপোক্ত করতে না চান, তবে চটজলদি পড়ে নিন নিচের করণীয় এবং বর্জনীয়গুলো। আর হ্যাঁ, শুধু পড়লেই চলবে না, সেই সাথে এইসব বিষয় পালনের প্রতিও মনোযোগী হতে হবে।

পরিচ্ছন্নতায় করণীয়
০ আপনার প্রতিদিনের ব্যবহার্য যেমন মোজা বা অন্তর্বাসে যেন ঘাম জমে দূর্গন্ধ তৈরি না করে সেদিকে খেয়াল রাখুন। এজন্য প্রয়োজনে প্রতি সপ্তাহে একাধিক মোজা ও অন্তর্বাস ব্যবহার করুন। সেই সাথে ব্যবহার্য এই বিষয়গুলো নিয়ম করে ধোয়ার অভ্যাসটাও রাখতে হবে।

০ বাইরে থেকে ফেরার পর যত দ্রুত সম্ভব পোশাক পাল্টে ক্যাজুয়াল পোশাক পড়ে ফেলুন। বাইরের জুতো নিয়ে ভুলেও ঘরের ভেতর প্রবেশ করবেন না।

০ শীত কিংবা গরমে ঘামের দূর্গন্ধ থেকে রক্ষা পেতে অবশ্যই মানসম্পন্ন ডিওডোরেন্ট, বডি স্প্রে বা পারফিউম ব্যবহারের অভ্যাস গড়ে তুলুন।

০ হাত ও পায়ের নখ যথাসম্ভব পরিষ্কার ও ছোট রাখবেন। অন্যদিকে যারা বড় নখ রাখাটাকে তাদের স্টাইল স্টেটমেন্ট এর অংশ ভাবেন তারাও নখের ভেতরের অংশ পরিষ্কার রাখুন।

০ সময়ের গোছগাছ সময়েই শেষ করুন। সপ্তাহের একদিন সব গোছানোর প্ল্যান না করে জায়গার জিনিস জায়গায় রাখার অভ্যাস গড়ে তুলুন।

০ নিয়মিত গোসল করা এবং বাইরে থেকে ফেরার পর হাত,পা ও মুখ ধোয়ার মতো ব্যক্তিগত পরিচ্ছন্নতাগুলো বজায় রাখুন।

০ নিজের ব্রাশ, তোয়ালে এবং অন্তর্বাসের মতো জিনিসগুলো নিজেই পরিষ্কার রাখার উদ্যোগ নিন।

০ বাড়ির বা নিজের রুমের ডাস্টবিন নিয়মিত পরিষ্কার করুন। একই ভাবে নজর দিন ঘরের আসবাবপত্র, চাদর, বালিশ, পর্দা ও বাথরুমের পরিচ্ছন্নতার প্রতিও।