মুক্ত বাতাসে তাসকিন-সৌম্যরা

0
36

‘সেলিব্রেটিং ফ্রেশ ক্রাইস্টচার্চ এয়ার’—সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তাসকিন আহমেদের এ পোস্টই বলে দেয় মুক্ত বাতাসে ফিরতে কতটা ব্যাকুল ছিলেন।

নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে পৌঁছানোর পর টানা ৪৮ ঘণ্টা রুমবন্দি ছিল বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা। প্রথমবার করোনা পরীক্ষায় সবাই নেগেটিভ রিপোর্ট পাওয়ায় গতকাল হোটেল রুমের বাইরে আসার অনুমতি পেয়েছে গোটা দল। তাও আধঘণ্টার জন্য! এটুকু সময় পেয়েই আনন্দে বিহ্বল তাসকিনরা।

বিসিবির মিডিয়া বিভাগের পাঠানো ভিডিও, ছবিতে দেখা গেছে হোটেলের সীমানার ভেতরই হালকা রানিং, স্ট্রেচিং করার সুযোগ পেয়েছেন সবাই। কোয়ারেন্টাইনের ৬ দিন পর্যন্ত এমন করে ৪০ মিনিট রানিংয়ের সুযোগ পাবেন ক্রিকেটাররা। সপ্তম দিন থেকে গ্রুপ করে অনুশীলনে নামবে বাংলাদেশ দল।
ভিডিওতে দেখা যায় তাসকিন, সাইফউদ্দিন, সৌম্যরা দুই মিটার দূরত্ব বজায় রেখে হাঁটছেন। কেউ ফিটনেসের কাজ করছেন। নির্বাচক হাবিবুল বাশার, সফরের পর্যবেক্ষক বিসিবি পরিচালক জালাল ইউনুসও যোগ দিয়েছেন ক্রিকেটারদের সঙ্গে। প্রায় ৩০ মিনিট রানিং করে আবার রুমে ফিরে যান সবাই।

রুমে বন্দি থাকলেও ফিটনেসের কাজ করছেন মুশফিকুর রহিমরা। কারো কারো রুমে রয়েছে সাইক্লিংয়ের সুবিধা, ফিটনেসের কাজ করার সরঞ্জামও পেয়েছেন অনেকে। গতকাল সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মুশফিকের পোস্ট করা এক ভিডিওতে দেখা গেছে, রুমের মধ্যে একাকী ফিটনেসের কাজে কঠোর পরিশ্রম করছেন।

করোনাকালের প্রথম বিদেশ সফরে ব্যতিক্রমী অভিজ্ঞতার মুখে পড়েছে বাংলাদেশ দল। তা জানাতে গিয়ে তাসকিন গতকাল বলেছেন, ‘আসলে এ রকম আইসোলেশন একটি আলাদা অভিজ্ঞতা। আর আগে কখনো এভাবে সময় কাটানো হয়নি। প্রায় ৪৮ ঘণ্টা পর আমরা ৩০-৪০ মিনিটের জন্য দুই মিটার দূরত্ব বজায় রেখে হাঁটার সুযোগ পেয়েছি।’করোনা পরীক্ষায় সবাই নেগেটিভ রিপোর্ট পেয়েছেন জানিয়ে তাসকিন বলেন, ‘প্রথম করোনা পরীক্ষায় সবার নেগেটিভ আসার পরে আমাদের হাঁটতে দিয়েছে। তো আরও কিছু টেস্ট বাকি আছে। এরপর ইনশাআল্লাহ চাইলে আমরা অনুশীলন শুরু করতে পারব। তো সব মিলিয়ে আলাদা অনুভূতি। চাইব যত দ্রুত অভিজ্ঞতাটা শেষ হোক ততই ভালো।’

ক্রাইস্টচার্চে হোটেল রুমে একাকী সিনেমা দেখে, পরিবারের সঙ্গে ফোনে কথা বলে, ফিটনেসের কাজ করেই সময় কাটছে বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের। গতকাল ডানহাতি এ পেসার বলেছেন, ‘সময় কাটছে আসলে পরিবারের সঙ্গে কথা বলে (ফোনে), সিনেমা দেখে। বিসিবি থেকে আমাদের কিছু শরীরচর্চারও ব্যবস্থা করে দিয়েছে। কিছু ব্যান্ডস আর সাইকেলিংয়ের জন্য দেওয়া হয়েছে। কিছু কর্মসূচি দেওয়া হয়েছে যে রুমে যে সব শরীরচর্চা করা সম্ভব সেগুলো করার জন্য।’