নিউজিল্যান্ডে শক্তিশালী ভূমিকম্প, টেরই পাননি তামিম-মুশফিকরা

0
28

তিনটি শক্তিশালী ভূমিকম্পে কেঁপে উঠেছে নিউজিল্যান্ড। এমনকি জারি হয়েছে সুনামি সতর্কতাও।
তবে সফরে থাকা বাংলাদেশ দল নিরাপদেই আছে। এমনটাই জানিয়েছেন দলের সঙ্গে নিউজিল্যান্ডে থাকা বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের (বিসিবি) পরিচালক ও মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস।

স্থানীয় সময় রাত ২টা ২৭ মিনিটে (শুক্রবার) ৭.২ মাত্রার ভূমিকম্প অনুভূত হয় নিউজিল্যান্ডের উত্তর অংশে। ভূমিকম্পটির উৎপত্তিস্থল দেশটির উত্তর-পূর্ব উপকূলবর্তী অঞ্চলের শহর গিসবর্ন থেকে ১৮০ কিলোমিটার দূরে। প্রথমে ৭.৩ তিন মাত্রার ভূমিকম্পের পর আবার ৮.১ মাত্রার কম্পন অনুভূত হয়েছে। মাঝে আরেকটি ভূমিকম্প হয় ৭.২ মাত্রার।

শক্তিশালী ভূমিকম্পের খবরে বাংলাদেশের ক্রিকেটপ্রেমীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। কারণ তিনটি করে ওয়ানডে, টি-টোয়েন্টি খেলতে এখন নিউজিল্যান্ডেই যে অবস্থান করছে টাইগাররা। তবে ভুমিকম্পের উৎপত্তিস্থল থেকে ক্রাইস্টচার্চের দূরত্ব অনেক বেশি হওয়ায় মুশফিক-তামিমরা নাকি কিছুই টের পাননি।

এক বিবৃতিতে জালাল ইউনুস জানিয়েছেন, নিউজিল্যান্ডে শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হানলেও, টাইগার ক্রিকেটার ও দলের সঙ্গে থাকা সবাই নিরাপদেই আছেন। মূলত ভূমিকম্পের কেন্দ্র থেকে অনেক দূরে বাংলাদেশ দলের বর্তমান অবস্থান। টাইগাররা এখন রয়েছে ক্রাইস্টচার্চে। সেখান থেকে গিসবর্নের দূরত্ব প্রায় ৯০০ কিলোমিটার। ফলে ভূমিকম্পের সময় টেরই পাননি ক্রিকেটাররা। বিশেষ করে নিউজিল্যান্ডে তখন মধ্যরাত হওয়ায় দলের প্রায় সবাই গভীর ঘুমে মগ্ন ছিলেন।

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের আনুষ্ঠানিক বিবৃতি নিচে তুলে ধরা হলো:

‘আজ (শুক্রবার) স্থানীয় সময় রাত ২টা ২৭ মিনিটে নিউজিল্যান্ডের নর্থ আইল্যান্ডের পূর্বে ৭.৩ মাত্রা ভূমিকম্প অনুভূত হয়েছে। এর সতর্কতাস্বরুপ নর্থ আইল্যান্ড, বিশেষ করে উপকূলীয় অঞ্চলে সুনামি সতর্কতা জারি করা হয়।

ক্রাইস্টচার্চ সাউথ আইল্যান্ডে অবস্থিত এবং ভূমিকম্পের কেন্দ্র থেকে এর দূরত্ব অনেক। এর বাইরেও বাংলাদেশ টিম ম্যানেজমেন্ট স্থানীয় কর্তৃপক্ষের সঙ্গে সার্বক্ষণিক যোগাযোগ রেখেছে। তারা নিশ্চিত করেছে, নিউজিল্যান্ডের এই অংশে চিন্তার কোনো কারণ নেই।

আমাদের দলের সবাই ভালো আছে। দিনের সকল কার্যক্রম স্বাভাবিক রুটিনেই এগিয়েছে। সেই মোতাবেক খেলোয়াড়রা নিজেদের গ্রুপে ভাগ হয়ে লিংকন গ্রিন পার্কে অনুশীলন করেছে। ’