বাড়ি বাংলাদেশ অর্থ-বাণিজ্য শুরুতেই ধসের মধ্যে পড়েছে দেশের শেয়ারবাজার

শুরুতেই ধসের মধ্যে পড়েছে দেশের শেয়ারবাজার

0
88

গত সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবারের মতো চলতি সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববারেও লেনদেনের শুরুতেই ধসের মধ্যে পড়েছে দেশের শেয়ারবাজার।

প্রথম আধঘণ্টার লেনদেনে প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) এবং অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সবকটি মূল্যসূচকের বড় পতন হয়েছে।

সূচকের বড় পতনের পাশাপাশি দুই বাজারেই লেনদেনে অংশ নেয়া বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমেছে। সেই সঙ্গে লেনদেনেও ধীর গতি দেখা যাচ্ছে।

DSE.jpg

এদিন শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরু হতেই একের পর এক প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম কমতে থাকে। এতে প্রথম ৬ মিনিটের লেনদেনে ডিএসইর প্রধান সূচক ২৪ পয়েন্ট পড়ে রায়।

লেনদেনের সময় গড়ানোর সঙ্গে সঙ্গে বাড়তে থাকে পতনের মাত্রা। ব্যাংক, বীমা, প্রকৌশল, ওষুধসহ প্রতিটি খাতের একের পর এক প্রতিষ্ঠান নাম লেখায় পতনের তালিকায়। ফলে দেখতে দেখতে ধসে রূপ নেয় শেয়ারবাজার।

এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত প্রথম আধঘণ্টার বা ১০টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত লেনদেনে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৭৩ পয়েন্টে পড়ে গেছে। অপর দুই সূচকের মধ্যে ডিএসই শরিয়াহ্ ১৮ পয়েন্ট কমেছে। আর ডিএসই-৩০ সূচক কমেছে ৩৪ পয়েন্ট।

DSE.jpg

এ সময় পর্যন্ত ডিএসইতে লেনদেনে অংশ নেয়া মাত্র ২০টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে ২২৩টির। আর ৫৫টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। লেনদেন হয়েছে প্রায় ১১৩ কোটি টাকা।

এর আগে গত বৃহস্পতিবারও শেয়ারবাজারে ভয়াবহ ধস নামে। এতে ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ৮১ পয়েন্ট কমে যায়। সম্মিলিতভাতে তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর শেয়ার ও ইউনিটের দাম ৬ হাজার ৪১৭ কোটি টাকা।

এদিকে রোববার প্রথম আধঘণ্টার লেনদেনে অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ১৩৩ পয়েন্ট কমেছে। লেনদেন হয়েছে ৩ কোটি ৪২ লাখ টাকা। লেনদেন অংশ নেওয়া ৭৮ প্রতিষ্ঠানের মধ্যে দাম বেড়েছে ৩টির, কমেছে ৬৬টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৯টির।